অপরাজনীতির মদদ দাতাদের আইনের আওতায় আনতে হবে: বাহাউদ্দিন নাছিম

আগের সংবাদ

দিলকুশা ক্লাবের নতুন সভাপতি রিয়াজ, সম্পাদক রতন

পরের সংবাদ

চট্টগ্রামে মিতু হত্যা: স্বামী সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদ

প্রকাশিত: মে ১১, ২০২১ , ৮:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ১১, ২০২১ , ১০:৩৩ অপরাহ্ণ

পাঁচ বছর আগে চট্টগ্রামে মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় তাঁর স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (১১ মে) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে তদন্তকারী সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এর আগে সোমবার এজন্য ঢাকা থেকে বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রামে নেওয়া হয়।

চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী এলাকায় পিবিআই চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ে নেওয়ার পর তাকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক (মেট্রো) সন্তোষ কুমার চাকমাসহ ঊর্ধ্বতন পর্যায়ের একটি টিম বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

জানতে চাইলে সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, বাবুল আক্তার মামলার বাদী। আমরা যেহেতু মামলা তদন্ত করছি। উনি অগ্রগতি জানতে আমাদের কাছে এসেছিলেন। সোমবার এজন্য তিনি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে পৌঁছেন।

এর আগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলা হয়েছিল, বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে পরে পিবিআই হেড কোয়ার্টার থেক বলা হয়, তাকে এখনও গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি।

২০১৬ সালের ৫ জুন ভোরে চট্টগ্রাম শহরের জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয় মাহমুদা খানম মিতুকে। ওই সময় পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার অবস্থান করছিলেন ঢাকায়। চট্টগ্রামে ফিরে তিনি অজ্ঞাতনামাদের আসামি করেপাঁচলাইশ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় তিনি বলেন, তাঁর জঙ্গিবিরোধী কার্যক্রমের জন্য স্ত্রী আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু হয়ে থাকতে পারেন। তবে সপ্তাহ দুয়েকের মাথায় মিতু হত্যার তদন্ত নতুন মোড় নেয়।

বাবুল আক্তারের শ্বশুর মোশাররফ হোসেন ও শাশুড়ি সাহেদা মোশাররফ অব্যাহতভাবে হত্যাকাণ্ডের জন্য বাবুল আক্তারকে দায়ী করে থাকেন। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে কখনোই এ বিষয়ে স্পষ্টভাবে কিছু বলা হয়নি। গোয়েন্দা বিভাগ মাত্র দুবার বাদী বাবুল আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। বাদীর দিক থেকেও হত্যাকাণ্ডের তদন্ত নিয়ে কোনো তাগাদা ছিল না।

শুরু থেকে চট্টগ্রামের ডিবি পুলিশ মামলাটির তদন্ত করে। তারা প্রায় তিন বছর তদন্ত করেও অভিযোগপত্র দিতে পারেনি। পরে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে মামলাটির তদন্তের ভার পিবিআইকে দেওয়া হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়