চুক্তি অনুযায়ী ভ্যাকসিন না এলে টাকা ফেরত পাব: অর্থমন্ত্রী

আগের সংবাদ

বঙ্গোপসাগরে ট্রলারে হামলা, আহত ১৬ জেলে

পরের সংবাদ

হেফাজতের কেন্দ্রীয় দুই সহকারী মহাসচিব দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে

প্রকাশিত: মে ৫, ২০২১ , ৪:৫৫ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ৫, ২০২১ , ৪:৫৫ অপরাহ্ণ

২০১৩ সালের ৫ মে রাজধানীতে তাণ্ডবের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সদ্যবিলুপ্ত হেফাজতের কেন্দ্রীয় দুই সহকারী মহাসচিব মুফতি শাখাওয়াত হোসাইন রাজী ও মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনকে ফের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

বুধবার (৫ মে) পৃথক মামলায় সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তা আসামিদের আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করলে শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম এ আদেশ দেন। এর মধ্য দিয়ে হেফাজতের শীর্ষ এই দুই নেতার দ্বিতীয় দফা রিমান্ড মঞ্জুর হলো।

জানা যায়, আগের রিমান্ড শেষে শাখাওয়াত হোসাইন রাজীকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর ২০১৩ সালের মতিঝিল ও পল্টন থানায় দায়ের করা পৃথক দুই মামলায় তার সাত দিন করে মোট ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপরদিকে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দুই মামলায় তিন দিন করে মোট ছয় দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে, গত ১৪ এপ্রিল সন্ধ্যায় রাজধানীর লালবাগ থেকে মুফতি শাখাওয়াত হোসাইন রাজীকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপির) গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) একটি টিম। পর দিন ১৫ এপ্রিল ২০১৩ সালে পল্টন থানায় হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এদিকে, ২০১৩ সালের একই ঘটনায় হেফাজতের সদ্যবিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনের ছয় দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার (৫ মে) তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে এ সময় ২০১৩ সালের রমনা ও শাহবাগ থানার পৃথক দুই মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য সাত দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস দুই মামলায় তিন দিন করে মোট ছয় দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে তাকে রাজধানী থেকে গ্রেপ্তারের পর গত ২২ এপ্রিল ২০১৩ সালের তান্ডবের ঘটনায় পল্টন থানায় দায়ের করা মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ অবরোধ কর্মসূচির নামে লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন, রমনা, শাহবাগ ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতের কর্মীরা। এ ঘটনায় রাজধানীর বিভিন্ন থানায় ৮৩টি মামলা করা হয়।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়