করোনায় বন্ধ হয়ে গেল আইপিএল

আগের সংবাদ

রাবি শিক্ষকদের গুলি করে হত্যার হুমকি

পরের সংবাদ

পদ্মায় পরিবার হারানো মিমের দায়িত্ব নিলেন চেয়ারম্যান

প্রকাশিত: মে ৪, ২০২১ , ১:৫৯ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ৪, ২০২১ , ২:০২ অপরাহ্ণ

মাদারীপুরের শিবচরে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় বাবা-মাসহ পরিবারের সবাইকে হারানো শিশু মিমের দায়িত্ব নিয়েছেন তেরখাদা উপজেলা চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম। আর একটি ব্যাগ ধরে ভেসে থাকায় বেঁচে ফেরে মিম।

মঙ্গলবার (৪ মে) সকালে মিমের মা-বাবা ও দুইবোনের জানাজায় এসে তিনি এ ঘোষণা দেন।

শহীদুল ইসলাম বলেন, উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে এক সপ্তাহের মধ্যে মিমের জন্য এক লাখ টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া মিমের বিয়ের আগপর্যন্ত তার ভরণপোষণ দেব বলে এলাকাবাসীর কাছে ওয়াদা দিয়েছি।

পারোখালী গ্রামে দুই দিন আগে প্রয়াত দাদির কবরের পাশে দাফন করা হয়েছে মিমের বাবা মনির শিকদার, মা হেনা বেগম ও ছোট দুই বোন সুমি-রুমিকে।

এ সময় সেখানে চেয়ারম্যান শহীদুল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, যুবলীগের আহ্বায়ক শফিকুর রহমান পলাশ, সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এফএম অহিদুজ্জামানসহ স্থানীয় লোকজন।

মিমের ছোট চাচা কামরুল শিকদার জানান, তার ভাই নিহত মনির রাজধানীর মিরপুর মসজিদ মার্কেটে কাপড়ের ব্যবসা করতেন। পরিবার নিয়ে থাকতেন মিরপুর সাড়ে ১১ নম্বর এলাকায়। রবিবার সন্ধ্যায় তাদের মা মারা গেলে দাফন করতে সবাইকে নিয়ে গ্রামে আসছিলেন মনির।

এর আগে, সোমবার (৩ মে) সকালে বালুবাহী বাল্কহেডের সঙ্গে স্পিডবোটের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে শিশু মিমের বাবা-মা ও দুই বোনসহ ২৬ জন মারা যায়। মিমসহ পাঁচজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

এদিকে, মাদারীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রত্যেক মৃত ব্যক্তির পরিবারের জন্য বরাদ্দ ২০ হাজার টাকা মিমের নানির কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়