কুড়িগ্রামে শিশু শিক্ষার্থীকে পেটানোয় মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

আগের সংবাদ

করোনার টিকা নিলেন অপু বিশ্বাস

পরের সংবাদ

দেশের বাইরে অচেনা বাংলাদেশ: টাইগারদের প্রশংসায় ভারতের মিডিয়া

প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০২১ , ১০:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ২৩, ২০২১ , ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

দেশের বাইরে অচেনা হয়ে ওঠেছে বাংলাদেশ। দাপুটে টাইগারদের প্রশংসা চলছে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমে। হিন্দুস্তান টাইমস, এনডিটিভি, আনন্দবাজার পত্রিকা সহ আরও অনেক গণমাধ্যমেই এখন টাইগাররা আলোচনা, উচ্ছ্বাস আর প্রশংসায় ভাসছেন।

ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে টাইগার ব্যাটসম্যানরা বুধবার এবং বৃহস্পতিবার আলোকিত দুটি দিন উপহার দিয়েছেন সমর্থকদের। নাজমুল হোসেন শান্তর বিশাল এক সেঞ্চুরির সঙ্গে অধিনায়ক মুমিনুলের বিদেশের মাটিতে প্রথম সেঞ্চুরির ওপর ভর করে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের তৃতীয় সেশন শুরুর খানিক পরই বাংলাদেশের স্কোর দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৪৭৪ রানে। এমন পরিস্থিতিতে যখন দুই ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম আর লিটন দাস টাইগারদের রানকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল তখনই আলো স্বল্পতার কারণে খেলা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) এক ঘণ্টারও বেশি সময় অপেক্ষা করার পর আলো স্বল্পতা কাটেনি। বরং ধীরে ধীরে আলো আরো কমে আসতে শুরু করলে শেষপর্যন্ত দ্বিতীয় দিনের খেলা ২৫ ওভার বাকি থাকতেই শেষ করার ঘোষণা দেন ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মাধুগালে।

২৫ ওভারের ঘাটতি পোষাতে ম্যাচের বাকি তিন দিন খেলা শুরু হবে ১৫ মিনিট আগে, তথা ৯টা ৪৫ মিনিটে। দিনে মোট ৯৮ ওভার খেলার চেষ্টা করা হবে। ৫টা ১৫ মিনিটে শেষ তিন দিনের খেলা শেষ করার সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। ওভার বাকি থাকলে এবং পর্যাপ্ত আলো থাকলে আরো আধাঘণ্টা সময় বাড়িয়ে নেয়া যাবে বলেও জানানো হয়েছে ম্যাচ রেফারির পক্ষ থেকে।

দিনের খেলা ২৫ ওভার না হলেও বেশ ভালো অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় দিন শেষে টাইগারদের সংগ্রহ ১৫৫ ওভারে ৪ উইকেটে ৪৭৪ রান। ৪৩ রান নিয়ে মুশফিকুর রহিম এবং ২৫ রান নিয়ে ব্যাট করছেন লিটন দাস।

পাল্লেকেলে টেস্টে এ মুহূর্তে টাইগাররা নিজেদের শক্তিশালী অবস্থানেই দেখছে। বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কান বোলারদের মুমিনুল-নাজমুলরা ভোগালেও দিনের অনেকটা সময় আটসাঁট বোলিং কিন্তু তারা ঠিকই করেছে। বাংলাদেশের রানের চাকার গতি কমিয়ে দেয়ার কৃতিত্বও তাদের দিতে হবে। বিশেষ করে পেসারা গতকাল তেমন রানই দেননি। দ্রুত ২/৩ উইকেট তুলে নিয়ে টাইগারদের ব্যাকফুটে ঠেলে দিতে পারত লঙ্কানরা। তবে এ ক্ষেত্রে মুমিনুল-নাজমুলদের পর মুশফিকুর রহিম আর লিটন দাসের প্রত্যয় সে ধরনের কিছু ঘটেনি।

এখন টাইগার সমর্থকদের মুখে মুখে ঘুরপাক খাচ্ছে, ৪৭৪ রানে থেমে থাকা লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা নিজেদের প্রথম ইনিংসের সংগ্রহটা আজ কত দূর নিয়ে যাবেন? তবে টেস্ট ক্রিকেটে তৃতীয় ও চতুর্থ ইনিংসে হুড়মুড় করে ব্যাটিং ভেঙে পড়ার যে ইতিহাস বাংলাদেশের আছে, তাতে বাংলাদেশ অবশ্যই চাইবে সংগ্রহটাকে আরো বাড়িয়ে নিতে। আজ মুশফিক-লিটনরা একটু গতি বাড়িয়ে মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত যদি ব্যাটিং করতে পারে, তাহলে সংগ্রহটা ৬০০ থেকে ৭০০ এর কাছাকাছি যাবে।

পাল্লেকেলে টেস্টের প্রথম দিনে ২ উইকেট হারিয়ে ৯০ ওভারে ৩০২ রান তুলে বুধবার দিন শেষ করেছিল মুমিনুল বাহিনী। উইকেটে প্রথম দিন শেষে নাজমুল হোসেন শান্ত ১২৬ ও মুমিনুল হক ৬৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনে সিংহলিজদের বিপক্ষে ব্যাট হাতে শুরুটা ভালোই করেছিল তারা দুজন।

এমনকি টেস্ট ক্যারিয়ারে ১১তম সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পাশাপাশি বিদেশের মাটিতে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পান মুমিনুল হক। এই সেঞ্চুরি পূর্ণ করতে তিনি ২২৪ বল মোকাবিলা করেন। তাছাড়া টেস্টে টাইগার ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বাধিক সেঞ্চুরির মালিক এখন মুমিনুল হক। তারপর দ্বিতীয় স্থানে আছেন ওপেনার তামিম ইকবাল। তিনি হাঁকিয়েছেন ৯টি সেঞ্চুরি। এছাড়া তৃতীয় উইকেটে শান্ত-মুমিনুল রেকর্ড জুটি গড়েছেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাল্লেকেলে টেস্টে তৃতীয় উইকেটে ২৪২ রানের জুটি গড়েছেন তারা দুজন। বাংলাদেশের পক্ষে টেস্টের তৃতীয় উইকেটে সবচেয়ে বড় জুটি এখন শান্ত-মুমিনুলের দখলে। এর আগে টেস্টে তৃতীয় উইকেটে বাংলাদেশের পক্ষে সেরা জুটির রেকর্ডটি ছিল মুশফিকুর রহিম আর মুমিনুল হকের। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে চট্টগ্রাম টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২৩৬ রানের জুটি গড়েছিলেন তারা।

বৃহস্পতিবার পাল্লেকেলেতে শান্ত-মুমিনুল জুটির রেকর্ড গড়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে তৃতীয় উইকেটে ২৪২ রানের রেকর্ড গড়া জুটি ভাঙে শান্ত আউট হলে। মধ্যাহ্ন বিরতির পর লঙ্কান বোলারদের বলে সাজঘরে ফিরেন শান্ত। তরুণ এই টাইগার ক্রিকেটার ৩৭৮ বল মোকাবিলা করে ১৭টি চারের সাহায্যে ১৬৩ রান করেন। শান্ত ফিরে গেলে উইকেটে আসেন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু মুমিনুলের সঙ্গে তার জুটি বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। চতুর্থ উইকেটে ৩০ রান যোগ হতেই সাজঘরের পথ ধরেন মুমিনুল। ধনঞ্জয়া ডি সিলভার আলগা ডেলিভারি শরীরের বাইরে থেকেই খেলতে চেয়েছিলেন টাইগার অধিনায়ক। কিন্তু বল ব্যাটে লেগে যায় চলে যায় থিরিমান্নের হাতে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়