দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতাল চালু হচ্ছে আজ

আগের সংবাদ

করোনার তীব্রতা আরও বেড়েছে, খুব দ্রুত মরছে রোগীরা: আইইডিসিআর

পরের সংবাদ

বাঁশখালীতে পুলিশের গুলিতে নিহতের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২১ , ৯:৪৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ১৮, ২০২১ , ১২:৪৩ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র এসএস পাওয়ার প্ল্যান্টে পুলিশের গুলিতে ৫ শ্রমিক মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে পুলিশ। তদন্ত কমিটিকে আগামী সাত কর্ম দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ও এসএস পাওয়ার প্ল্যান্ট কর্তৃপক্ষ থেকে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় এ তদন্ত কমিটি করেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন খান।

আনোয়ার হোসেন বলেন, অতিরিক্ত ডিআইজি (অপরাশেন ও ক্রাইম) জাকির হোসেন খানকে প্রধান করে রেঞ্জ অফিসের পুলিশ সুপার নেছার উদ্দীন ও চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত এসপি কবির হোসনকে নিয়ে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের আগামী সাত কর্ম দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলার বিষয়ে বাঁশখালী থানার ওসি শফিউল কবির জানান, পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে বাঁশখালী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. রাশেদ দুই থেকে আড়াই হাজার অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করেছেন। এছাড়া পাওয়ার প্লান্টের চিফ কো-অর্ডিনেটর ফারুক আহমেদ প্ল্যান্টে ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগে ২২ জনের নাম উল্লেখসহ ১ হাজার ৪০ থেকে ৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

এর আগে শনিবার সকালে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দাবি-দাওয়ার জেড়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটে এস এস পাওয়ার প্ল্যান্টের শ্রমিকদের। সংঘের্ষে পুলিশের গুলিতে নিহত হন ৫ জন এবং গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন ৫০ জন। এছাড়া আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ছয় জন।

শ্রমিকদের ১২ দফা দাবি হলো-

১. ১০ তারিখ বেতন দিতে হবে।
২. পানি ও বাথরুম ব্যবহার উপযোগী করতে হবে।
৩. রমজান মাসে ৮ ঘন্টা করে ডিউটি করাতে হবে, কেননা ১০ ঘণ্টা ডিউটি করলে ইফতারের সময় পাওয়া যায়না।
৪. শুক্রবার অর্ধ কর্ম দিবস দিতে হবে, জুমার নামাজ পড়া ও বিশ্রামের সুযোগের জন্য।
৫. ঈদের বোনাস ৫০ শতাংশ দিতে হবে।
৬. কোন শ্রমিক কাটিংয়ের (ছাঁটায়ের) ১ মাস আগে বলতে হবে এবং ছাঁটাইয়ের পর তার পাওনা বেতন দিতে হবে। যখন তখন হুট করেই ছাঁটাই করা যাবে না।
৭. অগ্নিকাণ্ডে কোন শ্রমিকের ক্ষতি হলে সম্পূর্ণ খরচ বিদ্যুৎকেন্দ্র কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হবে।
৮. স্কেল অনুসারে শ্রমিকদের বেতন দিতে হবে।
৯. ঝুঁকি নিয়ে কাজ করলেও শ্রমিকরা বীমা ভাতা পাননা। তাই ইন্সুরেন্স সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।
১০. কোন চাইনিজ বাঙ্গালি শ্রমিকদের গায়ে হাত দিতে পারবে না।
১১. সকাল ৭ টা থেকে ডিউটি দিতে হবে
১২. সকল দাবি পূরণ হলে ডিউটিতে যোগ দেওয়া।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়