আমের বাম্পার ফলনের আশা

আগের সংবাদ

প্রোটিয়াদের হারিয়ে রেকর্ড গড়ল পাকিস্তান

পরের সংবাদ

যে কারণে হ্যাটট্রিক শিরোপা জিততে পারে মুম্বাই

প্রকাশিত: এপ্রিল ১০, ২০২১ , ১১:৩১ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ১০, ২০২১ , ১১:৩১ অপরাহ্ণ

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) গত দুই আসর ধরে শিরোপা জিতে আসছে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তাদের সামনে এবার সুযোগ আইপিএলের প্রথম দল হিসেবে হ্যাটট্রিক শিরোপা জেতার। ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং ডিপার্টমেন্ট মিলিয়ে দারুণ দল গঠন করেছে মুম্বাই। শুধু তাই না, অতীত ইতিহাসও এবার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের শিরোপা জয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছে। ২০১৩ সাল থেকে গত ৮ বছরে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স যতবার শিরোপা জিতেছে তার প্রত্যেকবারই নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরেছে। এবারের উদ্বোধনী দিনেও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ২ উইকেটে হেরেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। যে কারণে, কাকতালীয় হলেও বলাই যায়, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সই হবে এবারের চ্যাম্পিয়ন।

গত শুক্রবার আইপিএলের ১৪তম আসরের প্রথম ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ২ উইকেটে হেরেছে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। এ নিয়ে টানা নবম আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচ হারল টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন দলটি। প্রথম ম্যাচ হারায় অবশ্য মুম্বাইয়ের ভক্ত-সমর্থকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ছে না মোটেও। কেননা ২০১৩ সাল থেকে চলতি আসরের আগপর্যন্ত টানা ৮ বছর নিজেদের প্রথম ম্যাচ হেরেছে মুম্বাই। এই আট আসরে পাঁচবারই শিরোপা জিতেছে তারা। সেই ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে চলতি আসরে আইপিএলের প্রথম দল হিসেবে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন হওয়ার নজির গড়বে মুম্বাই।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবারের আসরের শিরোপার জোর দাবিদার। কেননা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো যথেষ্ট গোলাবারুদ রয়েছে তাদের দলে। এর মধ্যে অন্যতম প্রধান কারণ হলো তাদের ব্যাটিং। মুম্বাইয়ের ব্যাটিং অর্ডারে শীর্ষ সাত ব্যাটসম্যানের মধ্যে পাঁচজনই খেলেছেন সদ্য সমাপ্ত ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজে। তারা হলেন রোহিত শর্মা, ইশান কিশান, সূর্যকুমার যাদব, হার্দিক পাণ্ডিয়া ও ক্রুনাল পান্ডিয়া। অন্য দুজন হলেন কুইন্টন ডি কক এবং কাইরন পোলার্ড। ব্যাটিংয়ে প্রায় সবাই রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। আইপিএলে অতীত পরিসংখ্যান কিংবা কুড়ি ওভার ক্রিকেটে তাদের সাহসী ব্যাটিংই বাড়তি আশা জাগাচ্ছে মুম্বাই ভক্তদের মনে। গত আসরে মূলত নির্ভরযোগ্য ব্যাটিংয়ের কারণেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা।

গত আসরে তরুণ ইশান কিশান একাই হাঁকিয়েছিলেন ৩০টি ছক্কা। এছাড়া তিনজন আলাদা ব্যাটসম্যান (ইশান, সূর্যকুমার ও ডি কক) এর ব্যাট থেকে আসে ৪টি করে হাফসেঞ্চুরি। সবাই ছিলেন দুর্দান্ত ফর্মে, মাত্র দুইজন ব্যাটসম্যানের স্ট্রাইকরেট ছিল ১৪০ এর নিচে। যে কারণে ক্রিসলিনের মতো খুনে ব্যাটসম্যানও সুযোগ পাননি একাদশে। ব্যাটিংয়ে শক্তি বেশি দেখে মনে করার কারণ নেই যে বোলিংয়ে হয়তো ঢিলেমি করেছে মুম্বাই। জাসপ্রিত বুমরাহ, ট্রেন্ট বোল্টের সঙ্গে এবার যোগ করা হয়েছে নিউজিল্যান্ডের গতিতারকা অ্যাডাম মিলনেকে। এ ছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার বাঁ-হাতি পেসার মার্কো জানসেনও রয়েছেন দলে। প্রথম ম্যাচেই যিনি নজর কেড়েছেন ক্রিকেটপ্রেমীদের।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়