পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের সহযোগিতায় দেশে ফিরলেন সৌদি প্রবাসী

আগের সংবাদ

বাজার ও গণপরিবহণে বেশি ছড়াচ্ছে করোনা, নজর নেই রাজধানীবাসীর

পরের সংবাদ

বরের উচ্চতা ৪০ ইঞ্চি আর কনের ৪২

প্রকাশিত: এপ্রিল ১০, ২০২১ , ৬:৩৪ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ১০, ২০২১ , ৬:৩৬ অপরাহ্ণ

বয়স ৩০ হলেও আব্বাস মণ্ডলের উচ্চতা মাত্র ৪০ ইঞ্চি। কনে মিলবে কিনা তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন তার বাবা-মা। অন্যদিকে মিম খাতুনের উচ্চতা ৪২ ইঞ্চি হওয়ায় তার বিয়ে নিয়েও ছিল দুশ্চিন্তা। অনেক চেষ্টার পর অবশেষে এই দুইজনের বিয়ে হওয়ায় খুশী পরিবার দুটি। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) রাতে তাদের বিয়ে হয়।

ঝিনাইদহের শৈলকুপার আউশিয়া গ্রামের এই নব দম্পতিকে দেখতে সকাল থেকেই বরের বাড়িতে ভিড় করছে মানুষ উপহার সামগ্রী নিয়ে।

বরের মা সাহিদা বেগম জানান, তার ছোট ছেলের উচ্চতা স্বাভাবিক হওয়ায় তার বিয়ে হয়েছে কয়েক বছর আগে। কিন্ত বড় ছেলে আব্বাস বামন আকৃতির হওয়ায় তাকে নিয়ে দুশ্চিন্তা ছিল তাদের। সেই দুশ্চিন্তার এবার অবসান ঘটল। একই উপজেলার লক্ষন্দিয়া গ্রামের ইউনুস আলী মোল্যার বড় মেয়ে মিম খাতুনকে তারা ছেলের বউ হিসেবে পছন্দ করায় শুক্রবার রাতে বরযাত্রী নিয়ে তারা কনের বাড়িতে যান। সেখানে আব্বাস- মিমের বিয়ে হয়। রাতেই নববধূকে বাড়িতে নিয়ে আসেন সাহিদা বেগম।

সাহিদা বেগম বলেন, ছেলের বিয়ে দিতে পারায় খুশি তারা। বউ নিয়ে যেন ছেলে সুখী থাকে এটাই এখন আশা।

আউশিয়া গ্রামের কাদের জোয়ার্দ্দার জানান, বিয়েতে দাওয়াত থাকার পরও যেতে পারেননি তিনি। শনিবার সকালে গ্রামের কয়েকজনকে নিয়ে তিনি নব দম্পতিকে দেখতে যান এবং আশির্বাদও করে আসেন।

স্থানীয় ওষুধ ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন জানান, ব্যাতিক্রমী এ নব দম্পতিকে দেখতে তিনি আব্বাস মন্ডলের বাড়িতে যান এবং তাদের হাতে উপহার তুলে দেন।

তবে, নব দম্পতি আব্বাস ও মিম জানান, আকৃতিতে ছোট হলেও বিয়ে নিয়ে তারা খুশি।

ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়