হেফাজত নেতাদের কাছে মামুনুলের ক্ষমা প্রার্থনা

আগের সংবাদ

চরফ্যাশনে দগ্ধ অবস্থায় মাথাবিহীন ২ লাশ উদ্ধার

পরের সংবাদ

ফুলবাড়ীয়ায় কৃষকের স্বপ্নে আঘাত

প্রকাশিত: এপ্রিল ৮, ২০২১ , ৫:২৫ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ৮, ২০২১ , ৫:২৭ অপরাহ্ণ

মাঠে দুলছে বোরো ধানে সোনালী শীষ, কৃষকের চোখে ভাসছে হাজারও স্বপ্ন। সেই স্বপ্নে আচমকা হানা দিয়েছে কালবৈশাখী ঝড় ও গরম বাতাস। ভেসে আসা এই গরম বাতাস এক নিমিষেই শেষ করে দিয়েছে হাজার হাজার কৃষকের স্বপ্ন। যখন আগাম বোরো ধানের ফসলে রূপালী রং ধারন করছে, আবার কোথাও সবেমাত্র ধানের শীষ বেরোচ্ছে ঠিক সেই সময় আচমকা ভেসে আসা গরম বাতাস ও বৈশাখী ঝড়ে বোরো ধানে ব্যাপক ক্ষতি দেখা দিয়েছে।

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার দেওখোলা, বালিয়ান, কুশমাইল, পুটিজানা, বাকতা, কালাদহ, রাঙ্গামাটিয়া, রাধাকানাই ইউনিয়নের পলাশতলী, গোবিন্দপুর গ্রামের মাঠ ঘুরে দেখা গেছে মাঠে বোরো ধানের বাম্পার সম্ভবনাময় ফসলে গরম ঝড় হাওয়ায় মাঠের ধানের শীষগুলো সাদা হয়ে গেছে মাটিতে মিষে আছে ধান গাছ । ফলে আগাম আটাশ জাতের ধানে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। হতাশায় পড়েছে কৃষকেরা।

রাধাকানাই ইউনিয়নের পলাশতলী গ্রামের এক কৃষক বলেন, ‘জীবনেও আমি এমন গরম বাতাস দেখি নাই। সকালে উঠে দেখি খেতের ধান মরে গেছে। আমরা কী খেয়ে বাঁচব, আমাদের কোন উপায় নেই। ঋণ করে গৃহস্থি করেছি। এখন কি করে ঋণ দেব? কীভাবে সারা বছর স্ত্রী, সন্তানের ভরণপোষণ করব? ‘খেতের পর খেত নষ্ট হয়ে গেছে।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. আব্দুল্ল্যাহ আল মামুন ও মাহফুজ রশিদ জানান, মার্চ মাসের ৩য় সপ্তাহ থেকে দিনের বেলার তাপমাত্রা বেশী থাকে যার ফলে ধানের ফুল ফোটা পর্যায়ে চিটা সমস্যা সৃষ্টি হয়ে থাকে। এ সময় বোরো ধানের যে সকল জাত ফুল ফোটা পর্যায়ে আছে বা এখন ফুল ফুটছে বা সামনে ফুল ফুটবে সে সকল জমিতে পানি ধরে রেখে ধানের ফুল ফোটা পর্যায়ে হিট শক অথবা হিট ইনজুরি থেকে রক্ষার পাওয়া যেতে পারে।

উপজেলা কৃষি অফিস জানান, আকস্মিকভাবে ভেসে আসা গরম বাতাস একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ। আর এ দুর্যোগে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে তা নিরুপনে উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা মাঠে জরিপ কাজ অব্যাহত রেখেছেন। পৌরসভাসহ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে ২২০ হেক্টর জমির বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। কৃষকদের জমিতে সার্বক্ষনিক পানি রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে এবং আমাদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে।

 

ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়