এই যেন প্রকৃতির প্রতিশোধ

আগের সংবাদ

মানসিক শান্তির খোরাক বই

পরের সংবাদ

পুরান ঢাকায় মশার উৎপাত

মাহবুবউদ্দিন চৌধুরী

আহ্বায়ক, সচেতন নাগরিক সমাজ

প্রকাশিত: এপ্রিল ৮, ২০২১ , ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ৮, ২০২১ , ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

রাজধানীতে যে হারে মশার উপদ্রব বেড়েছে তাতে মনে হয় ম্যালেরিয়া এবার ঘরে ঘরে ছড়িয়ে পড়বে। মশা নিধনে ঢাকার দুই মেয়রের হুঙ্কার এখন নিশ্চুপ। খানাখন্দে ভরা পুরান ঢাকার রাস্তাঘাট সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেই। স্ট্রিট লাইট জ্বলে না, জলাবদ্ধতা কে দূর করবে, সিটি করপোরেশনের লোকজন কোথায় তারা? ডিপ ড্রেন ভর্তি মশা কিলবিল করছে। মশার ওষুধের কোনো খবর নেই। মশার যন্ত্রণায় এই করোনাকালে ছেলেমেয়েরা ঠিকমতো ঘরে বসে লেখাপড়া করতে পারছে না, তারপর মশার কয়েল স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক। মশার ওষুধ নিয়মিত না ছিটানো বা মশা নিধনে কার্যকর কোনো ভূমিকা না থাকার কারণে মশা এখন আরো শক্তিশালী। দিন দিন যে হারে মশার উপদ্রব বাড়ছে তাতে আশঙ্কা হয় ম্যালেরিয়া এবার ঘরে ঘরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। পূর্বে নগরীতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হতো বর্তমানে এ ধরনের কোনো পরিকল্পনা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন হাতে না থাকায় নগরবাসী উদ্বিগ্ন। মশার জন্মরোধের ব্যবস্থা ও মশার উপদ্রব নিবারণের জন্য সর্বোত্তম যা যা করণীয় তা এখনই জরুরিভাবে ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনকে উদ্যোগ নিতে হবে। আমরা আশা করি, ঢাকার উভয় সিটি করপোরেশন বিলম্ব না করেই মশকবিরোধী অভিযানের আয়োজনটি করবেন এবং সে অভিযান যাতে সত্যিকারভাবে ফলদায়ক হয় তাও নিশ্চিত করবেন। পরিচ্ছন্ন অভিযান চালানো দরকার, গৃহবাসীদের পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করা দরকার। গ্রাউন্ড অপারেশন চালানোর ক্ষেত্রে এই বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করার কোনো বিকল্প নেই।

মাহবুবউদ্দিন চৌধুরী

আহ্বায়ক, সচেতন নাগরিক সমাজ

১৭ ফরিদাবাদ, গেণ্ডারিয়া, ঢাকা।

[email protected]

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়