মার্কেট খোলা রাখার দাবিতে সড়কে রাজশাহীর ব্যবসায়ীরা

আগের সংবাদ

ডাক্তার বললেন মৃত, প্রসূতির সুস্থ সন্তান প্রসব

পরের সংবাদ

মিঠুনের বিপরীতে মাঠে নামছেন জয়া বচ্চন

প্রকাশিত: এপ্রিল ৫, ২০২১ , ১:২৯ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ৫, ২০২১ , ৪:১৯ অপরাহ্ণ

এবার মিঠুনের বিপরীতে নির্বাচনী মাঠে নামছেন জয়া বচ্চন। সোমবার থেকে তৃণমূলের হয়ে প্রচারে নামবেন সমাজবাদী পার্টির রাজ্যসভার সাংসদ জয়া। তার প্রথম প্রচারই দক্ষিণের টালিগঞ্জ কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী তথা রাজ্যের বিদায়ী মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের হয়ে। জয়াকে প্রথমেই ‘টলিপাড়া’য় প্রচারে নামিয়ে দেওয়া ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলেই মনে করছে তৃণমূল। খবর আনন্দবাজারের।

এদিকে রাজনীতিতে জয়ার এই প্রথম সক্রিয় আবির্ভাব কিছু প্রশ্নেরও জন্ম দিয়েছে। যা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে তৃণমূল এবং বিরোধী বিজেপি উভয় শিবিরেই। ব্রিগেডে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভায় বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ মিঠুন। তার পর থেকে তিনি যে শুধু রাজ্য জুড়ে বিজেপির হয়ে প্রচার এবং রোড-শো করছেন, তা-ই নয়, তিনি কলকাতার ভোটারও হয়েছেন। কিন্তু জয়াকে প্রচারে আনার মধ্য দিয়ে মিঠুনের প্রচারে ‘সাড়া’ পাওয়াকে কি একরকম ‘বৈধতা’ দিয়ে দেওয়া হল?

সোমবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, জয়া বচ্চনের সঙ্গে বাংলার কোনো যোগাযোগই নেই। বাঙালির এই প্রজন্ম জয়াকে চেনেও না। মিঠুন’দা কিন্তু বাংলার সঙ্গে নিজেকে সবসময়েই জড়িয়ে রাখেন। মিঠুন’দার সঙ্গে সঙ্গে বাংলার যোগাযোগ যতটা, জয়া বচ্চনের সঙ্গে তাঁর সিকিভাগও নেই।

দিলীপকে কটাক্ষ করে তৃণমূলের নেতারা বলছেন, দিলীপবাবু ভয় পেয়েছেন! তাই তিনি জয়া বচ্চনকে এই ভাবে আক্রমণ করছেন।

তৃণমূলের নেতাদের বক্তব্য, প্রবাসী হলেও জয়া আগাপাশতলা বাঙালি। বিবাহসূত্রে তিনি ‘বচ্চন’ হলেও আদতে ‘ভাদুড়ি’। ফলে তিনি কেন বহিরাগত হতে যাবেন! বাংলার রাজনীতিতে এর আগে সে ভাবে অংশ না নিলেও বাংলার সঙ্গে জয়ার যোগাযোগ যথেষ্ট ‘ঘনিষ্ঠ’। চলচ্চিত্র উৎসবের সময় তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আবেদনে বারবার সাড়া দিয়েছেন। সমাজবাদী পার্টির সাংসদ হওয়ায় তাঁর ‘বিজেপি-বিরোধিতা’ও প্রশ্নাতীত। ফলে বাংলায় মমতা তথা তৃণমূলের হয়ে তাঁর ভোটের প্রচারে আসার মধ্যে কোনো প্রশ্ন নেই।

তৃণমূলের এক প্রথমসারির নেতার কথায়, আমাদের দলে তারকা প্রচারকের কোনো ঘাটতি নেই। কিন্তু যদি আরও তারকা মমতাদির হয়ে প্রচার করতে আসেন, তা হলে অসুবিধা কোথায়! যে সব প্রশ্ন তোলা হচ্ছে, তার সঙ্গে বাস্তবের কোনো সম্পর্ক নেই।

তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, জাতীয় রাজনীতিতে বিজেপি-র অন্যতম বিরোধী শক্তি সমাজবাদী পার্টির প্রতিনিধি হয়েই কলকাতায় এসেছেন জয়া। নিজের দলের অবস্থান জেনেই মমতাকে সমর্থন জানিয়ে তৃণমূলের প্রচারে অংশ নেবেন তিনি।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়