করোনা আক্রান্ত হয়ে সিমিন হোসেন রিমি হাসপাতালে

আগের সংবাদ

মুক্তি পাচ্ছে ‘যদি কিন্তু তবুও’

পরের সংবাদ

করোনার গণটিকাদান কি সঙ্কটে পড়তে যাচ্ছে

প্রকাশিত: মার্চ ৩০, ২০২১ , ৮:১৫ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ৩০, ২০২১ , ৮:২৬ অপরাহ্ণ

দেশে আগামী ৮ এপ্রিল থেকে করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া শুরুর কথা। তবে নতুন করে টিকা পাওয়া নিয়ে সংকটের মুখে গণটিকাদান কর্মসূচি। এমনকি প্রথম ডোজ পাওয়া সবাইকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার মতো পর্যাপ্ত টিকাও এ মূহুর্তে স্বাস্থ্য বিভাগের হাতে নেই। পাশাপাশি ভারত অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা রপ্তানিতে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারির পর এ নিয়ে আশঙ্কা আরও তীব্র হয়েছে। খবর বিবিসি বাংলার।

জানুয়ারি থেকে গত তিন মাসে বাংলাদেশের কেনা টিকার মধ্যে দেড় কোটি ডোজ আসার কথা। কিন্তু স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেবেই এখন পর্যন্ত সে টিকা থেকে বাংলাদেশ পেয়েছে অর্ধেকেরও কম।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সম্প্রতি ইঙ্গিত দিয়েছেন, সেরাম ইন্সটিটিউট থেকে যথাসময়ে টিকা না এলে তারা ‘অন্য পরিকল্পনা’ করবেন। তবে বাস্তবতা হলো সেরাম ইন্সটিটিউট ছাড়া অন্য কোন সূত্র থেকে টিকা আনার জন্য আনুষ্ঠানিক কোনো চুক্তি এখন পর্যন্ত করতে পারেনি বাংলাদেশ।

এমন পরিস্থিতিতে সেরাম ইন্সটিটিউট চুক্তি অনুযায়ী টিকা দিতে ব্যর্থ হলে করোনার টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য বিভাগ গভীর সংকটে পড়তে পারে।

স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা অবশ্য বলছেন টিকা নিয়ে কূটনৈতিক তৎপরতা চলছে। তারা আশা করছেন চাহিদা মতো টিকা সময়মতই পেয়ে যাবেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা বলেছেন, টিকা নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই। কাজ চলছে। সময়মতই টিকা পাবে বাংলাদেশ। তাই কোন সংকট হবে না।’ তিনি আরও বলেন, দ্বিতীয় ডোজ দেয়া শুরু আগে প্রথম ডোজ দেওয়া সাময়িকভাবে বন্ধ করা হবে। আবার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার মধ্যেই নতুন করে টিকা আসা নিশ্চিত হয়ে যাবে। এরপর আবার নতুন করে টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হবে। ফলে সঙ্কটের আশঙ্কা নেই।

আগামী ৮ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেয়া শুরুর কথা। তার আগে প্রথম ডোজ দেওয়া কবে বন্ধ হবে সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। আবার প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ করা হলে, যারা টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন তাদেরও অনেকের টিকা না পাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হবে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়