ফেসবুকে পুলিশকে অভিযোগ, শিশু নির্যাতনকারী গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

এই সফর সম্পর্ক দৃঢ় করায় অবদান রাখবে: টুইটে মোদী

পরের সংবাদ

মুজিববর্ষে সুদানের সেনাবাহিনীকে জাতির পিতার জীবনী প্রদান

প্রকাশিত: মার্চ ২৬, ২০২১ , ১২:৫৭ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ২৬, ২০২১ , ১২:৫৭ অপরাহ্ণ

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে সুদানের সেনাবাহিনীকে জাতির পিতার জীবনী উপহার দিয়েছে দেশটিতে শান্তিরক্ষার কাজে নিয়োজিত বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ।

সুদানের দারফুর প্রদেশের এল ফাশেরে সিক্স ডিভিশনের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার জেনারেল ফয়সাল মোহামেদ আহমেদ হাসানকে জাতির পিতার ওপর লিখা ইংরেজী ভাষায় অনূদিত শতাধিক বই প্রদান করেন করা হয়। এসময় বাংলাদেশ পুলিশকে ধন্যবাদ জানান তারা।

তিনি বলেন, এই বইগুলো শুধুমাত্র বাংলাদেশের জাতির পিতার সম্পর্কে জ্ঞান আহরণের সুযোগ দিবে না, বরং সুদান ও বাংলাদেশের মধ্যে ভাতৃত্ববোধ বৃদ্ধি করবে।

ব্যানএফপিইউ কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম মহান মুক্তিযুদ্ধে ও বাংলাদেশ সৃষ্টিতে জাতির পিতার অবদানের কথাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। ১৯৭৩ সালে বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতার “জুলি ও কুরি” পদক অর্জনের সময়টি তিনি তুলে ধরেন।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। তাই আমরা ইতোমধ্যে জাতির পিতাকে পরিচিতি করতে সুদান গস পুলিশ, উনামিড লাইব্রেরি, নতুন মিশন উনিটামসসহ দারফুরের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সর্বমোট প্রায় ছয় শতাধিক বই প্রদান করি। আমাদের উনামিড মিশনের কার্যক্রম শেষ, কিন্তু আমাদের এই বই প্রদান আশা করি সুদানের সকলের কাছে সুখকর স্মৃতি হয়ে থাকবে।

বই প্রদান অনুষ্ঠানে স্ট্যাট লিয়াজো অফিসার (উত্তর দারফুর) বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ ইউনিট শান্তিরক্ষা মিশনে এসে শান্তিরক্ষা প্রতিষ্ঠার কাজের পাশাপাশি সুদান আর্মড ফোর্সকে বই প্রদানের দিনটি মাইলফলক হিসাবে উল্লেখ করেন।

ব্যানএফপিইউ কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম জাতির পিতার ওপর লিখা বইগুলোর ওপর সংক্ষিপ্ত ধারণা দেন। ডিউটি অফিসার আরাফাতুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট দারফুরে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। তিনি জেনারেল ও তার অফিসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সামনে দারফুরে বাংলাদেশ পুলিশ কর্তৃক নানা উল্লেখযোগ্য কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন।

পরে কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম বাংলাদেশ পুলিশের অভিভাবক আইজিপির পক্ষ থেকে একটি শুভেচ্ছা ক্রেস্ট জেনারেল ফয়সালের হাতে তুলে দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন কর্নেল আহমেদ আব্দেল বারি, মিলিটারি ইন্টিলিজেন্সের কর্মকর্তাসহ সেনাবাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়