প্যাভিলিয়নের চাপে কোণঠাসা ছোট স্টল

আগের সংবাদ

শেখ মুজিবের জন্ম হয়েছিল বলেই আজ আমরা স্বাধীন: প্রধানমন্ত্রী

পরের সংবাদ

হোয়াইটওয়াশ এড়াতে ভোরে মাঠে নামছে টাইগাররা

প্রকাশিত: মার্চ ২৫, ২০২১ , ৭:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ২৫, ২০২১ , ৭:১১ অপরাহ্ণ

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ২টি ম্যাচে হারায় ইতোমধ্যে সিরিজ পরাজয় নিশ্চিত হয়ে গেছে বাংলাদেশের। শুক্রবার (২৬ মার্চ) ভোরে ওয়েলিংটনে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে খেলতে নামবে দুই দল। বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় শুরু হবে ম্যাচটি। বিটিভি, গাজী টিভি এবং টি স্পোর্টস ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে। সিরিজ যেহেতু বাংলাদেশ হেরে গেছে তাই এই ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য এখন শুধু নিয়ম রক্ষার ম্যাচ।

তবে এই ম্যাচটি নিয়ম রক্ষার হলেও বাংলাদেশের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এর কারণ হলো এটি সম্মান রক্ষার ম্যাচ। প্রথমতো হোয়াইটওয়াশ এড়ানো। আর দ্বিতীয় হলো নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অন্তত একটি ম্যাচে জয় পাওয়া। বাংলাদেশ এখন কিউইদের মাটিতে ২৮টি ম্যাচ খেলে একটি ম্যাচেও জয় তুলে নিতে পারেনি। তাছাড়া এই ম্যাচগুলো হলো আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ সুপার লিগের ম্যাচ।

এই ম্যাচগুলোর ফলাফলের ভিত্তিতে নির্ধারিত হবে ২০২৩ বিশ্বকাপের দল। ফলে প্রত্যেকটি ম্যাচই হলো গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে তিন ম্যাচের সিরিজ দিয়ে ওয়ানডে সুপার লিগে নিজেদের যাত্রা শুরু করে। আর সেই সিরিজটি ৩-০ ব্যবধানে জিতে নিয়ে পূর্ণ ৩০ পয়েন্ট তুলে নেয়।

কিউইদের বিপক্ষে এখনো কোনো পয়েন্ট পায়নি তামিম-মুশফিকরা। ফলে এই ম্যাচটিতে জয় তুলে আরো ১০ পয়েন্ট ও সম্মান রক্ষা করতে হবে টাইগারদের। শুক্রবারের ম্যাচটি জিততে হলে টাইগারদের ব্যাটিং,বোলিং এবং ফিল্ডিং এই তিনভাগে দুর্দান্ত নৈপুণ্য প্রদর্শন করতে হবে। ক্রিকেটে একটি প্রচলিত কথা আছে। ক্যাচ মিস তো ম্যাচ মিস। এ সত্য গত ম্যাচে ফের প্রমাণ করেছে টাইগাররা।

শুক্রবার ভোরে ওয়েলিংটনে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের দেয়া ৪-৫টি সহজ ক্যাচ ছেড়েছে তামিম বাহিনী। অন্য দিকে ব্যাটসম্যানরা যদি আরো ২০-৩০ রান বেশি করতে পারতো তাহলে ক্রাইস্টচার্চের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেত টাইগাররা। সব বিষয় মিলে শুক্রবার বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বশীল ইনিংস খেলতে হবে। গড়তে হবে তিনশ’র বেশি রান। বোলারদের করতে হবে বুদ্ধিদীপ্ত বোলিং। ফিল্ডারদের থাকতে হবে সজাগ। ক্যাচ তালুবন্দি করতে ভুল করা যাবে না।

এদিকে শুক্রবার ম্যাচটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলতে নামবেন কিউই বর্তমান দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রস টেলর। তিনি খেলবেন বাংলাদেশের বিপক্ষে অভিষেক হওয়া উইল ইয়ংয়ের জায়গায়। তিনি ইনজুরির কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ২টি ওয়ানডে ম্যাচে খেলতে পারেননি।

নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা হলো তাদের পেস আক্রমণ। বিগত দুই ম্যাচেই যা বেশ স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। ব্যাটিংয়ে নেমে নতুন বলে ট্রেন্ট বোল্ট, ম্যাট হেনরি, কাইল জ্যামিসনদের বিপক্ষে হরহামেশাই টপ অর্ডারদের ধুকতে দেখা গেছে।

কোনো ব্যাটসম্যানই পাওয়ার প্লের সুবিধা শতভাগ আদায় করে নিতে পারেননি। যখনই উইকেটে সেট হতে গেছেন ফিরতে হয়েছে নিদারুণ হতাশা ভঙ্গের বেদনায়। সেকারণেই হয়তো শেষ ওয়ানডেকে সামনে রেখে শিষ্যদের ম্যাচের প্রথম দিকে সেট হওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছেন যদি তামিমরা প্রথমে ব্যাটিং করতে যান, তাহলে অবশ্যই তাদের নতুন বল নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে এবং এও খেয়াল রাখতে হবে যেন শুরুতেই ইনিংসে ধস না নামে। আর রান তাড়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই পাওয়ার প্লে সুযোগ শতভাগ আদায় করে নিতে হবে।

ভিডিও বার্তায় লুইস বলেন, আমরা যদি প্রথমে ব্যাটিং করি তাহলে অবশ্যই নতুন বল নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে। ওদের ট্রেন্ট বোল্ট আছে এর ওপর যদি সাউথির (টিম সাউথি) মতো কোয়ালিটি পারফর্মার আসে সেক্ষেত্রে আমাদের খেয়াল করতে হবে যেন শুরুতে ইনিংসে ধস না নামে। আর যদি আমরা রান তাড়া করতে চাই সেক্ষেত্রে আমাদের অবশ্যই পাওয়ার প্লের সুবিধা নিতে হবে, ঝুঁকি নিতে হবে এবং শটস খেলতে হবে।

ওয়ানডে সিরিজ শেষে একদিনের বিরতি দিয়েই টি-টোয়েন্টি সিরিজে নেমে পড়বে বাংলাদেশ। অর্থাৎ আগামী ২৮ মার্চ প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে খেলতে নামবে দুই দল। বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায় হ্যামিলটনের সেডন পার্কে হবে ম্যাচটি।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়