করোনা: ভারতে এ বছর একদিনে রেকর্ড রোগী শনাক্ত

আগের সংবাদ

নূরের সংগঠনের নেতার সাম্প্রদায়িক বক্তব্যে প্রতিবাদ একাংশের

পরের সংবাদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

প্রকাশিত: মার্চ ১৩, ২০২১ , ৬:৪২ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ১৩, ২০২১ , ৬:৪২ অপরাহ্ণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় পূর্বশত্রু তার জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ফয়েজ মিয়া (৬০) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার (১৩ মার্চ) সকালে কসবা উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নে নিমবাড়ী গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে গুরুতর আহত ফয়েজ মিয়া (৪০) ও রিমন মিয়া নামে দুইজনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে ফয়েজ মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

ঘটনার পর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংঘর্ষের আশঙ্কায় এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

নিহতের ছেলে ইকরাম মিয়া বলেন, গত ২০১৭ সালে তারা আমার চাচাকে হত্যা করে। গত ৪ বছর ধরে আমাদের পরিবারের ওপর নানাভাবে হামলা নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছিল। আমার চাচার হত্যা মামলার সাক্ষী ছিলেন আমার বাবা। মামলা কার্যক্রম শেষের পথে ছিল। শুধু রায়ের অপেক্ষায় ছিলাম আমরা। আমরা আমাদের চাচার হত্যা মামলাটি মীমাংসা না করার কারণেই আজকে তারা আমার বাবাকে হত্যা করছে। আমি হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার দাবি করছি।

ঘটনায় আহত ফায়েজ মিয়া বলেন, আমরা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে হঠাৎ করে আমাদের ওপর হামলা করে তারা। আমাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে রাস্তার কিনারে ফেলে দেয় এবং তারা ফয়েজ ভাইকে ঘটনাস্থলেই মেরে ফেলে। আগের হত্যা মামলার আপস না করার কারণে ওই মামলার আসামিরাই এই হামলা করেছে। আমি তাদের বিচার দাবি করছি।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে কসবা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। কসবা সার্কেলর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নাহিদ হাসান বলেন, কসবা নিমবাড়ীতে দুপক্ষের সংঘর্ষে ফয়েজ মিয়া নামে একজন গুরুত্বর আহত অবস্থায় হাসপাতালে মারা যায়।

তিনি জানান, গত ২০১৭ সালের একটি হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এই সংঘর্ষ হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। পরবর্তী সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনার পর নিহতের লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে এখনো থানায় এ ব্যাপারে মামলা হয়নি। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়