আইডি হ্যাক করে প্রেমিকাকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেন সৌরভ

আগের সংবাদ

মুম্বাইয়ে জন-দিশার শুটিং বন্ধ করল পুলিশ

পরের সংবাদ

নুড়ি কুড়িয়ে তৈরি প্রাসাদ!

প্রকাশিত: মার্চ ৭, ২০২১ , ১২:২৫ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ৭, ২০২১ , ১২:৫৮ অপরাহ্ণ

পৃথিবীতে নানা ধরনের মানুষ রয়েছে যারা নানা অদ্ভুত কাজ করে বেড়ায়। বলা যায়, সেটাই তাদের মূল নেশা। এর মাধ্যমে তারা স্থান পায় ইতিহাসে। তাই সেগুলিই কালের বিবর্তনে সেরার সেরা নির্বাচিত হয়ে রয় সমগ্র বিশ্বের মধ্যে। তেমনই অদ্ভুত এক ব্যক্তি, এই ফার্দিনান্দ সেশেল নামক অতি সাধারণ মানুষটি। উনিশ শতকের শেষর দিকে রাস্তা থেকে নানা আকারের পাথর কুড়িয়ে এনে তা দিয়ে প্রাসাদ বানান তিনি। শুনতে অবাক লাগলেও এই দৃষ্টান্ত তিনিই প্রথম রেখেছিলেন। পেশায় ছিলেন তিনি ডাক হরকরা। ঘুরে ঘুরে মানুষকে চিঠি দিতে দিতেই তার মাথায় এই বুদ্ধিটি আসে। খবর কলকাতা টুয়েন্টি ফোরের।

হটেরাইভস থেকে টারসেন পর্যন্ত ১৮ মাইল পথ হেঁটে পাড়ি দিয়ে তিনি প্রতিদিন যাতায়াত করতেন কাজের সূত্রে। যাওয়া-আসার পথের মধ্যেই তিনি এমন প্রচুর পাথর পড়ে থাকতে দেখেন সেই রাস্তায়। তখন তার শখ হয় ওগুলো জমানোর। সেই থেকেই এর শুরু।

একসময় একটি ঠেলা গাড়ি জোগাড় করে রাস্তায় কাজের ফাঁকে পাথর জোগাড় করতেন। সেই পাথরের বিশাল সংগ্রহ তৈরি হলে প্যালেস বানানোর চিন্তা আসে তার মাথায়। ৩৩ বছরের প্রচেষ্ঠায় তিনি ওটা বানিয়েছেন। তিনি আপন মনে তৈরি করেছেন প্রাসাদ। এর জন্যে কোনো শিক্ষা তার ছিলো না। মুঘল, ইউরোপিয়ান, আরব শিল্পরীতি মিলিয়ে মিশিয়ে দেখতে পাওয়া যায় এই প্যালেসে। আবার অনেক পশু-পাখির মূর্তি রয়েছে ভেতরে যা সচরাচর দেখা যায় না।

ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়