সড়কে প্রাণ গেল নগরকান্দা মেয়রের স্ত্রী-পুত্রসহ ৩ জনের

আগের সংবাদ

শাস্তি পেলেন জামালপুরের সেই বিতর্কিত ডিসি

পরের সংবাদ

চট্টগ্রামে হাজতিকে হত্যাচেষ্টা

কারাগারের নিরাপত্তা বারবার প্রশ্নবিদ্ধ

প্রকাশিত: মার্চ ৪, ২০২১ , ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মার্চ ৪, ২০২১ , ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

কারাগারের নিরাপত্তা ও পরিবেশ নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন উঠছে। লেখক মুশতাক আহমদের মৃত্যুর রেশ থাকতেই চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে এক হাজতিকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রূপম কান্তি নাথ নামে ওই হাজতি এখন হাসপাতালে অনেকটা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এমন ঘটনা অমানবিক। পরিবারের অভিযোগ বৈদ্যুতিক শক ও বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এ ঘটনায় জেল সুপার এবং জেলারসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে ভুক্তভোগীর স্ত্রী মামলা করলে বিষয়টি গণমাধ্যমে উঠে আসে। কারাগারে কারণে-অকারণে বন্দিদের ওপর নির্যাতনের খবরও সংবাদমাধ্যমে আসে। সংশোধনাগার হলেও কারাগারগুলো হয়ে উঠছে যেন শোষণাগার। ব্যবসায়িক একটি মামলায় আড়াই মাস ধরে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে ছিলেন রূপম কান্তি নাথ। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে গেলে ২৫ ফেব্রুয়ারি ভর্তি করা হয় চমেক হাসপাতালে। কারাগারে পড়ে গিয়ে অসুস্থ হওয়ার কথা বলা হলেও ৬০ বছর বয়সি রূপমের দেহে আছে আঘাতের চিহ্ন। রয়েছে শরীরের স্পর্শকাতর জায়গায় মারাত্মক জখম। রূপমের স্ত্রী আভিযোগ করেন, এ বছরের ২৪ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে রূপমকে বৈদ্যুতিক শক ও বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। তিনি বলেন, একটি বিষয়ে সম্মতি আদায় করতে না পারায় তাকে (রূপম) হত্যাচেষ্টা করা হয়। দেশের কারাগারগুলোতে নিরাপত্তা ও সুরক্ষা ব্যবস্থা যথাযথ করার ক্ষেত্রে যে যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে- পর পর দুটি ঘটনায় তা-ই উন্মোচন করে দিয়েছে। অপরাধ সংশোধনের ক্ষেত্রটি যদি তা না হয়ে এর বিপরীত পরিস্থিতির সৃষ্টি করে, তবে শুভবোধসম্পন্নদের উদ্বিগ্ন না হয়ে উপায় কী? গুরুত্বের সঙ্গে এ ব্যাপারে দৃষ্টি দেয়া ও কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া অত্যন্ত জরুরি। সংবিধান অনুযায়ী আটক ব্যক্তিকে নির্যাতন বা তার সঙ্গে অমানবিক আচরণ করা নিষিদ্ধ। চট্টগ্রাম কারাগারে রূপম কান্তি নাথ নির্যাতনের ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত করতে হবে। ঘটনার সঙ্গে অভিযুক্তদের কোনোভাবেই ছাড় দেয়া যাবে না। আমরা আশা করি, এ ঘটনায় জেল সুপারসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের মধ্য দিয়েই বিষয়টি থেমে থাকবে না। এ জন্য নজর দিতে হবে আরো গভীরে। এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি নিষ্ঠার সঙ্গে তদন্তক্রমে পুরো রহস্য উন্মোচনে সফল হবে- এ প্রত্যাশা করছি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়