দুই দ্বীপের দূরত্ব ২.৪ মাইল, সময়ের ব্যবধান ২১ ঘণ্টা

আগের সংবাদ

এশিয়ার ডিজিটাল নেতা বাংলাদেশ: সজীব ওয়াজেদ জয়

পরের সংবাদ

শ্রীলংকায় মুসলিম ও খ্রিস্টানদের কবর হবে প্রত্যন্ত দ্বীপে

প্রকাশিত: মার্চ ৩, ২০২১ , ১:১২ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ৩, ২০২১ , ১:১২ অপরাহ্ণ

শ্রীলংকা সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংখ্যালঘু মুসলিম ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে তাদের কবর দেওয়া হবে বিচ্ছিন্ন এক দ্বীপে। এর আগে সংখ্যালঘুদের মৃতদেহ পুড়িয়ে ফেলতে বা দাহ করতে বাধ্য করা হলেও তা নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে শ্রীলংকা সরকার। কারণ ইসলাম ধর্মে মৃতদেহ পুড়িয়ে ফেলার নিয়ম নেই। খবর বিবিসি বাংলার।

ভারত মহাসাগরের মান্নার উপসাগরে ইরানাথিবু দ্বীপটি এখন করোনায় মারা যাওয়া মুসলিম ও খ্রিস্টানদের জন্য নির্ধারণ করেছে শ্রীলংকা সরকার। কম ঘনবসতির কথা উল্লেখ করে দাফনের জন্য এই দ্বীপকে নির্বাচিত করা হয়। রাজধানী কলম্বো থেকে তিনশ কিলোমিটার দূরে এ দ্বীপটির অবস্থান।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও জাতিসংঘ এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে আপত্তি তুলেছে।

তবে কলম্বো গেজেটের বরাত দিয়ে সরকারের মুখপাত্র কেহেলিয়া রামবুকভেলা বলেছেন , দ্বীপটির এক পাশে এজন্য একটি জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের নিরাপদে দাফনের জন্য পর্যাপ্ত গাইডলাইন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়