জাতীয় জরুরি সেবায় যোগ হচ্ছে ৪০০ নম্বর

আগের সংবাদ

২৬ মার্চ চালু হচ্ছে ঢাকা-জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন

পরের সংবাদ

আরও টিকা কেনার টাকা প্রস্তুত রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: মার্চ ২, ২০২১ , ৫:০৪ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ২, ২০২১ , ১১:১৮ অপরাহ্ণ

করোনা প্রতিরোধে আরও টিকা কেনা হবে। এ জন্য অর্থের সংস্থান নিশ্চিতের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি কৃষি উৎপাদন বিঘ্নিত এবং মানুষের যেন খাদ্য সমস্যা না হয় সেই নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার (২ মার্চ) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (এনইসি) সভায় প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন। পরিকল্পনা কমিশনের সচিব মোহাম্মদ জয়নুল বারী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সচিবরা রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে উপস্থিত থেকে ও সচিবালয় থেকে এবং প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এনইসি সভায় অংশ নেন।

সচিব মোহাম্মদ জয়নুল বারী আরও বলেন, নদীর ভাঙন রোধে যেন শুষ্ক মৌসুমে কাজ করা হয় সে নির্দেশনাও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরও জানান, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন করোনাকালে সারা বিশ্বের অর্থনীতি মারাত্মক হুমকির মুখে। এ পরিস্থিতিতেও আমরা যেভাবে অর্থনীতিকে চালু রেখেছি, সেটা বজায় রাখতে হবে। আমাদের এখন গুরুত্ব দিতে হবে খাদ্য উৎপাদন, মানুষকে খাদ্য সরবরাহ, মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় যে বিষয়গুলো আছে, অর্থ ব্যয়ের ক্ষেত্রে সেখানে গুরুত্ব দিতে হবে। এর পাশাপাশি যথাসময়ে এবং যথাসম্ভব আইন-কানুন মেনে সব প্রকল্প সমাপ্ত করতেও নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপি অনুমোদন

এদিকে মহামারীর মধ্যে দারিদ্র্য বিমোচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পে অগ্রাধিকার দিয়ে চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) অনুমোদন দিয়েছে এনইসি।

এনইসি সভায় ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৪৩ কোটি টাকার সংশোধিত এডিপি অনুমোদন দেওয়া হয়, যা চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের মূল এডিপি থেকে ৭ হাজার ৫০২ কোটি টাকা বা ৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ কম। চলতি অর্থবছরের মূল এডিপির আকার ছিল ২ লাখ ৫ হাজার ১৪৫ কোটি টাকা। মোট বরাদ্দ থেকে যে ৭ হাজার ৫০২ কোটি টাকা কমানো হয়েছে, তার পুরোটাই বৈদেশিক সহায়তা থেকে কাটা হয়েছে। মূল এডিপিতে সরকারের নিজস্ব তহবিলের মোট বরাদ্দ কমানো হয়নি। তবে সামগ্রিক চাহিদা বিবেচনায় দারিদ্র্য বিমোচনের সঙ্গে সরাসরি সংশ্লিষ্ট প্রকল্পে অগ্রাধিকার দিয়ে বিভিন্ন খাতের বরাদ্দ বাড়িয়ে বা কমিয়ে সমন্বয় করা হয়েছে।

আরআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়