শাজাহানপুরে বাসের চাপায় সিএনজির চার যাত্রীর মৃত্যু

আগের সংবাদ

সিলেটে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৮, আহত অর্ধশতাধিক

পরের সংবাদ

টিকা নিলেও হতে পারে করোনার সংক্রমণ

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১ , ৮:২৬ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১ , ৮:২৬ পূর্বাহ্ণ

করোনার প্রতিষেধক হিসেবে দেশে দেশে শুরু হয়েছে গণটিকাদান কর্মসূচি। তবে টিকা নেয়ার পরও অনেকে আক্রান্ত হচ্ছে করোনা ভাইরাসে। যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ভারত, ইসরায়েলসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টিকা নেয়ার পরও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এমন একাধিক ঘটনা বাংলাদেশেও ঘটেছে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি দেশে গণটিকা কার্যক্রম শুরুর পর টিকা নিয়েছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব মো. মোহসীন। টিকা নেয়ার ১২ দিন পর তিনি করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, ৭ ফেব্রুয়ারি টিকা নেয়ার তিন দিন পর করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন অধিদপ্তরের একজন পরিচালক। টিকা নেয়ার পরও করোনায় কতজন আক্রান্ত হয়েছে তার কোনো সঠিক তথ্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে নেই। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, এ নিয়ে উদ্বিগ্ন না হয়ে সচেতন হওয়া জরুরি। টিকা সংক্রমণের মাত্রা ও মৃত্যুঝুঁকি কমাবে। তবে নেয়ার পরও সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

টিকা নেয়ার পরও কোনো ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে বৃটেনের লেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইরোলজিস্ট ড. জুলিয়ান ট্যাং বলেছেন, আমাদের হাতে যেসব উপাত্ত আছে তা থেকে দেখা যায়, কিছু মানুষ টিকা নেয়ার পরও সংক্রমিত হতে পারেন। টিকা নেয়ার পরের দিন বা এক সপ্তাহ পর যদি ভাইরাস ব্যক্তির দেহে ঢোকে, তাহলেও ওই ব্যক্তি সংক্রমণের ঝুঁকিতে পড়ে যাবেন এবং অন্যদের সংক্রমিত করবেন। তবে যারা টিকা একেবারেই নেননি তাদের তুলনায় টিকা নেয়া ব্যক্তিরা কম অসুস্থ হবেন; তাদের দেহে ভাইরাসের মাত্রাও থাকবে অনেক কম। ব্যক্তি যে ধরনের টিকাই নিন, বেশির ভাগ টিকার ক্ষেত্রে প্রথম ডোজ নেয়ার দুই থেকে তিন সপ্তাহ পর সেটি কাজ করতে শুরু করে।

যুক্তরাষ্ট্রের মেয়ো ক্লিনিকের অধ্যাপক ড. অ্যান্ড্রু ব্যাডলিও জানিয়েছেন, বিভিন্ন গবেষণার উপাত্ত থেকে জানা যাচ্ছে কিছু লোক টিকা নিলেও করোনায় সংক্রমিত হবেন। তিনি বলেন, আমাদের বিবেচনায় নিতে হবে অনুমোদিত টিকাগুলো বেশ কার্যকর হলেও করোনার মূল জীবাণুর বিরুদ্ধে সেগুলো শতভাগ সুরক্ষা দিতে পারবে না।

এমন বক্তব্য ও তথ্যে উদ্বিগ্ন অনেকেই। টিকা নেয়ার পর অনেকেই ভেবেছিলেন তারা নিরাপদ। করোনা মুক্ত হয়ে গেছেন। স্বাস্থ্যবিধি মানার কড়াকড়ি তাদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। এখন তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবেন। তবে টিকা কার্যক্রম শুরুর আগে থেকেই বিশেষজ্ঞরা টিকা নেয়ার পাশাপাশি মাস্ক পরা, ঘনঘন সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া, জনসমাগম এড়িয়ে চলার মতো স্বাস্থ্যবিধিগুলো মানার ওপর জোর দিয়ে আসছেন। তারা বলছেন, টিকা মৃত্যু কমাবে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে টিকা একটি অন্যতম পন্থা। একমাত্র পন্থা নয়। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই। সেই সঙ্গে বিশেষজ্ঞরা এও বলছেন, টিকা নেয়ার পর সংক্রমিত হওয়ার অর্থ এই নয় যে, ওই টিকা অকার্যকর। ব্যক্তি যদি সচেতনভাবে জীবনযাপন না করেন তাহলে পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি থাকে।

এ বিষয়ে জানাতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, টিকা নেয়ার পরও ব্যক্তি করোনায় সংক্রমিত হতে পারেন। এই বিষয়টি টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ক্ষেত্রেও দেখা গেছে। এছাড়া টিকার এক ডোজ পুরোপুরি কাজ করবে না। দুই ডোজ দিতে হবে। আবার এটিও আমাদের মনে রাখতে হবে টিকা শতভাগ কার্যকর হবে এমন কথা কোনো টিকা প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানই কিন্তু বলেনি। টিকা দিলে সংক্রমণ কমে যাবে। কমানোর জন্যই টিকা দেয়া। তবে সংক্রমণ হতে পারে।

টিকা নেয়ার কতদিন পর ব্যক্তির দেহে এন্টিবডি তৈরি হয় এমন প্রশ্নের উত্তরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও করোনা প্রতিরোধে জাতীয় কারিগরি পরামর্শ কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, টিকা নেয়ার পর পরই তা কাজ শুরু করবে তেমনটা কিন্তু নয়। টিকা রোগ প্রতিরোধের বিরুদ্ধে কাজ করে, এটি শরীরে ভালো প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরিতে কাজ করে। এর জন্য কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। টিকা নেয়ার ১৪ থেকে ২১ দিনের মধ্যে ব্যক্তির শরীরে এন্টিবডি তৈরি হতে থাকে। আর এন্টিবডি শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। তবে আমাদের মনে রাখতে হবে করোনা থেকে সুরক্ষার একমাত্র হাতিয়ার টিকা নয়।

টিকা নেয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর জোর দেন রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ গবেষণা প্রতিষ্ঠানের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও করোনার জাতীয় টিকা বিতরণ সংক্রান্ত কোর কমিটির সদস্য ডা. এ এস এম আলমগীর। তিনি বলেন, টিকা নেয়ার পাশাপাশি মাস্ক পরা, ঘন ঘন সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া, জনসমাগম এড়িয়ে চলার মতো স্বাস্থ্যবিধিগুলো আমাদের মানতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে টিকা মৃত্যু কমাবে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে টিকা একটি অন্যতম পন্থা। একমাত্র পন্থা নয়। টিকা নিলে কেউ করোনায় আক্রান্ত হবেন না, এমন কোনো নিশ্চয়তা কিন্তু বিজ্ঞানীরা দেননি। তবে টিকা নেয়ার পর কেউ আক্রান্ত হলে তার মারাত্মক সংক্রমণ ও মৃত্যুঝুঁকি কম থাকবে।

পিআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়