ডুমুরিয়ায় ৮ গ্রামের কৃষকরা সার থেকে বঞ্চিত

আগের সংবাদ

আত্মরক্ষায় ব্যুত্থান মার্শাল আর্ট শিখছে পঞ্চগড়ের কন্যারত্নরা

পরের সংবাদ

আগের রুটিনেই চলবে সাত কলেজের পরীক্ষা

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১ , ৪:১৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১ , ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে সিদ্ধান্ত বদল করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এখন আগের রুটিনেই চলবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সাত কলেজের পরীক্ষা। তবে এই সাত কলেজের হল বন্ধ থাকবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের এই তথ্য জানান।

তিনি জানান, বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সাত কলেজের অধ্যক্ষদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

ওই অনলাইন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, প্রো-ভিসি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের সমন্বয়কসহ কলেজ অধ্যক্ষরা।

গত সোমবার শিক্ষামন্ত্রী প্রেস ব্রিফিংয়ে ঘোষণা করেন আগামী ১৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়া হবে। এই সময় পর্যন্ত পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্ত সমভাবে প্রযোজ্য হবে। এরপর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাত কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে বৈঠক করে চলমান পরীক্ষা ১৭ মে পর্যন্ত স্থগিত করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এ ঘটনায় রাত থেকেই পরীক্ষা চালিয়ে নেওয়ার দাবিতে নীলক্ষেতে সড়ক অবরোধ আন্দোলন শুরু করে ঢাবি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

বুধবার তিতুমীর কলেজের সামনে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ। ছবি: ভোরের কাগজ

বুধবার সকাল থেকে ফের নীলক্ষেত মোড়ে ও তিতুমীর কলেজের সামনে অবস্থান নেন শত শত শিক্ষার্থী। ফলে নীলক্ষেত-নিউমার্কেট সড়কসহ এর আশেপাশের অনেক সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে শিক্ষার্থীদের একটি অংশ সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে অবস্থান নিলে সিটি কলেজ থেকে শাহবাগ পর্যন্ত সড়ক বন্ধ হয়ে যায়। চরম দুর্ভোগে পড়েন অফিগামী হাজার হাজার মানুষ। আন্দোলনকারীরাও দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয়।

পরীক্ষা চালিয়ে নেওয়ার দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ। ছবি: ভোরের কাগজ

শিক্ষার্থীদের দাবি জানায়, চলমান পরীক্ষার উপর স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে পরীক্ষা নিতে হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিভুক্ত হয়ে আমরা সেশনজটে পড়েছি। এর মধ্যে করোনা মহামারি আমাদের এক বছর পিছিয়ে দিয়েছে। আমরা এমন অবিবেচনাপূর্ণ সিদ্ধান্ত মানি না।

ইতিবাচক সিদ্ধান্ত ছাড়া আন্দোলন থেকে সরে না যাওয়ার হুমকির মুখে অবশেষে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের টনক নড়ে। জরুরি বৈঠকে বসার ঘোষাণা আসে।

আরআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়