জালিয়াতির দায়ে জাবি ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি আজীবন বহিষ্কার

আগের সংবাদ

নিউজ ফ্ল্যাশ

পরের সংবাদ

রাজাকার তালিকাও দ্রুত প্রকাশের সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ , ৩:৫৭ অপরাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ , ৫:২০ অপরাহ্ণ

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা যত দ্রুত সম্ভব যাচাই বাছাই সাপেক্ষে প্রকাশের সুপারিশ করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি। একইসঙ্গে ঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করে রাজাকারের তালিকা চূড়ান্ত করার সুপারিশ করেছে কমিটি।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের ‘মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি’র ১৮তম বৈঠক কমিটির সভাপতি শাজাহান খানে’র সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক, মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম, কাজী ফিরোজ রশীদ এবং মোছলেম উদ্দিন আহমদ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

এখন পর্যন্ত দুই হাজার ৫০৪ জন রাজাকারের তালিকা পাওয়া গেছে

বৈঠকে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশের লক্ষ্যে জেলা ও উপজেলার সংশ্লিষ্ট সকলের সমন্বয়ে শিগগিরই চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের সুপারিশ করা হয়। পরবর্তী প্রজন্মকে অবহিত করার উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধু কর্নার ও পাঠাগার স্থাপনের পরামর্শ দেওয়া হয়।

বৈঠকে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশের অগ্রগতি, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল কর্তৃক গৃহীত পরিকল্পনাগুলোর অগ্রগতি এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের নির্বাচনের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আলোচনা হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা সেবা বৃদ্ধির লক্ষ্যে শারিরীক পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং ঔষধ ক্রয়ের প্রয়োজনীয় অর্থ বৃদ্ধির ব্যবস্থা নেবার জন্য কমিটি সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করে রাজাকারের তালিকা চূড়ান্ত করার সুপারিশ করা হয়। এ সময় জানানো হয়, স্বাধীনতাবিরোধীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা চেয়ে চিঠি দেয়ার পর এখন পর্যন্ত দুই হাজার ৫০৪ জনের তালিকা পাওয়া গেছে। বিভিন্ন জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও যুদ্ধকালীন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডাররা এ তথ্য দিয়েছেন। এর মধ্যে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে ৮৯৭ জন এবং বৃহত্তর রংপুর জেলা থেকে ১ হাজার ৬০৭ জনের নাম পাওয়া গেছে।

বৈঠক শেষে সংসদীয় কমিটির সভাপতি ও সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, মুক্তিযোদ্ধা বা রাজাকারের সংজ্ঞায়িত করে যাচাই-বাছাই অনির্দিষ্টকাল চলতে পারে না এবং এটাকে ‘নিয়মিতকরণ’ বলে সংজ্ঞায়িত করে প্রক্রিয়াটি দ্রুত সম্পন্নের সুপারিশ করেছি। যত দ্রুত সম্ভব তালিকা প্রকাশ করার কথা আমরা বলেছি।

বৈঠকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন সংস্থা প্রধানগণসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়