ভাষার চর্চা ও বিকাশ একান্ত প্রয়োজন: প্রধানমন্ত্রী

আগের সংবাদ

গুলিতে ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সাংবাদিক মুজাক্কিরের মৃত্যু

পরের সংবাদ

জর্জিয়া স্টেট সেনেটে বঙ্গবন্ধু ও ভাষা শহীদদের স্মরণ

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১ , ৬:১৪ অপরাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১ , ৬:২০ অপরাহ্ণ

বাঙালির শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষার জন্য আত্মদানকারী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া রাজ্যের স্টেট সেনেট।

জর্জিয়া স্টেট সিনেটের প্রথম বাংলাদেশি-আমেরিকান সেনেটর শেখ রহমান এ প্রস্তাব এনেছিলেন। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি জর্জিয়া সেনেটে তা গৃহীত হয়। সেখানে বলা হয়, ভাষার স্থান মানুষের অন্তরের অন্তস্থলে। আর এই বিশ্বের ভাষা ও সংস্কৃতির বৈচিত্র্য লালন বিকাশ ও সংরক্ষণের জন্য বহুভাষিকতা গুরুত্বপূর্ণ।

বাঙালির ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস তুলে ধরে সেখানে বলা হয়, মাতৃভাষার অধিকার রক্ষায় ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি নজিরবিহীন ত্যাগ স্বীকার করেছে বাংলাদেশ, দিনটি তারা পালন করে শহীদ দিবস হিসেবে।

ইউনেস্কো ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালনের প্রস্তাবকে সমর্থন করে। এরপর ২০১০ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে সেই প্রস্তাব গৃহীত হয়। এরপর থেকে প্রতি বছর ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে, সে কথাও বলা হয়েছে জর্জিয়া স্টেট সিনেটে পাস হওয়া প্রস্তাবে।

সেখানে বলা হয়, বাংলাদেশ এ বছর স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপান করছে, একই সঙ্গে চলছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীর উদযাপন, যিনি ছিলেন ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের একজন গুরুত্বপূর্ণ ছাত্রনেতা।

এই সেনেটের পর্ষদ সদস্যরা ২১ ফেব্রুয়ারিকে শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছেন এবং বাংলাদেশে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন।”

সেনেটর শেখ রহমান বলেন, নিজ দেশ, সংস্কৃতি, ও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি সেই চেতনা প্রবাস প্রজন্মে জাগ্রত রাখার জন্যে জর্জিয়া স্টেট সেনেটে এই প্রস্তাব পাস হওয়ার গুরুত্ব অপরিসীম।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়