জাগ্রত হোক অমর একুশের প্রকৃত চেতনা

আগের সংবাদ

আমেরিকার বহুসংস্কৃতি, বহুত্ববাদের সূত্র

পরের সংবাদ

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে রোসাটমের ওয়েবিনার

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২১ , ৮:৩০ অপরাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২১ , ৮:৩০ অপরাহ্ণ

জেএসসি এটোমএনার্গোপ্রকেট এর প্রকৌশল বিশ্লেষণ এবং ডিজাইন সল্যুশন বিভাগের বিশেষজ্ঞ নিকোলাই পপভের মতে, রাশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের অভিজ্ঞতাই রোসাটমকে একটি সর্বোত্তম নির্মাণ, ব্যবস্থা, নির্মাণ প্রযুক্তি উন্নয়ন, নির্দিষ্ট সময় ও নির্ধারিত বাজেটের মধ্যে এই প্রকল্প নির্মাণ শেষ করতে সহায়তা করেছে।

বাংলাদেশের সাংবাদিকদের জন্যে রোসাটম আয়োজিত একটি ওয়েবিনারে পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজের বিভিন্ন ধাপ, নকশা এবং প্রজেক্ট অর্গানাইজেশন বিষয়ে ব্যাখ্যা করেন মি.পপভ।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র সম্পর্কে তিনি বলেন, বাংলাদেশ পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র-২ কে রেফারেন্স প্রজেক্ট হিসেবে গ্রহণ করে। এটি একটি যুগান্তকারী জেনারেশন থ্রি প্লাস প্রযুক্তি যেখানে রাশিয়ান এবং আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা মান বজায় রেখে নকশা করা হয়েছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পে এক্টিভ এবং প্যাসিভ নিরাপত্তা ব্যবস্থা আছে ।

মি.পপভ তার উপস্থাপনায় নির্মাণ ব্যবস্থাপনার অনেকগুলো উপাদান তুলে ধরেন। তিনি প্রাতিষ্ঠানিক ও টেকনিকাল ট্রেনিং, নির্মাণ সংস্থার প্রস্তুতি, অবকাঠামো নির্মানের প্রস্তুতি এবং অন্যান্য যন্ত্রপাতি স্থাপনসহ আরো কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বিশদ ব্যখ্যা করেন। এছাড়াও তিনি প্রকল্প ব্যবস্থাপনা এবং এর অন্যান্য উপাদান যেমন নির্মাণ এবং যন্ত্র সংস্থাপন, সাপ্লাই চেইন ও অন্যান্য দলিলাদি উন্মুক্তকরণের পরিকল্পনা বিষয়টি উল্লেখ করেন ।

নির্মানকারী সংস্থার বিষয়ে তিনি বলেন, যে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা, প্রকল্পের মূল ভবন ও অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণে জন্যে সংস্থা ও প্রযুক্তি নির্বাচন এবং যন্ত্রাংশ প্রস্তুতির ন্যায্যতা ও এর সংস্থাপন, বিশেষ নির্মাণ কাজ এছাড়াও বিভিন্ন জটিল ভবন ও অন্যান্য কাঠামো নির্মাণ করা হয়েছে ।

মি. পপভ শেষাংশে পুনারায় উল্লেখ করেন, রোসাটমের প্রকৌশল বিভাগের বিশেষজ্ঞগণ এবং রোসাটমের অন্যান্য বাস্তবায়নকারী সংস্থা ১৪টি দেশে ৯২টি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ইউনিট আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা মান বজায় রেখে নকশা ও বাস্তবায়ন করেছে। যার মধ্যে কয়েকটি নির্মানাধীন প্রকল্প রয়েছে। প্রকৌশল বিভাগের বিশেষজ্ঞগণ জিআরইএস এর নকশা ও রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন যন্ত্রাংশ প্রস্তুতির জন্যে অত্যন্ত অভিজ্ঞ এবং দক্ষ ।

রূপপুরের আবহাওয়া ও জলবায়ু বিবেচনা করে এই প্রকল্পকে সঠিক সময়ের মধ্যে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে নকশা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে নির্মানকারী সংস্থার বিশাল অভিজ্ঞতাকে ব্যবহার করা হয়। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কার্যকাল ৬০ বছর।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়