‘ছুটির ঘণ্টা’র পরিচালক আজিজুর রহমান গুরুতর অসুস্থ

আগের সংবাদ

আ.লীগ সরকারকে নিশ্চিহ্নের ষড়যন্ত্র হয়েছিল কোটালীপাড়ায়

পরের সংবাদ

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের প্রথম নারী চেয়ারম্যান লুনা মারা গেছেন

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৩:৪০ অপরাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৪:২০ অপরাহ্ণ

রাষ্ট্রয়াত্ব ব্যাংকগুলোর মধ্যে প্রথম নারী চেয়ারম্যান (জনতা ব্যাংক) লুনা শামসুদ্দোহা মারা গেছেন। তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। আগামী বৃহস্পতিবার সকালে তার লাশ দেশে আনা হবে। জনতা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চত করেছেন।

২০১৮ সালে সেরা নারী উদ্যোক্তা ও রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাকের প্রথম নারী চেয়ারম্যান হিসেবে ভোরের কাগজ থেকে তাকে সম্মাননা দেয়া হয়েছিল। লুনা সামসুদ্দোহা ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পান। তিনিই প্রথম নারী যিনি বাংলাদেশের রাষ্ট্রয়াত্ত্ব কোন ব্যাংকের প্রথম চেয়ারম্যান হয়েছেন।

এর আগে তিনি একই ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে ১৯৭৮ সালে এমএ ডিগ্রি অর্জনের পর তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে প্রভাষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৯২ সালে দোহাটেক নিউ মিডিয়া প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তাঁর ব্যবসায়িক জীবনের সূচনা ঘটে এবং দেশের একজন আইটি বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। বিদেশের বাজারে বাংলাদেশের সফটওয়্যার বাজারজাত করণে তার অবদান আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পরিচিতি এবং খ্যাতি এনে দিয়েছে। তিনি সুইজারল্যান্ডের গ্লোবাল থট লিডার অন ইনক্লুসিভ গ্রোথের সদস্য।

এমন একটি সময় লুনা সামসুদ্দোহা সফটঅয়্যার নিয়ে কাজ শরু করেন, যখন বিষয়টি বাংলাদেশের জন্য একেবারেই নতুন ছিল। লুনা সামসুদ্দোহা প্রতিষ্ঠিত দোহাটেক সফটঅয়্যার ফার্মটি সারা বিশ্বের ২৪টি দেশে তথ্যপ্রযুক্তি সেবা দিচ্ছে। আমেরিকার ৭০০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবহৃত হচ্ছে দোহাটেকের নিজস্ব ডেভেলপমেন্ট সফটঅয়্যার। দোহাটেকের উল্লেখযোগ্য সেবাগ্রহীতাদের মধ্যে বিশ্বব্যাংক, প্যান আমেরিকান হেলথ অর্গানাইজেশন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, আমেরিকান পোস্টাল সার্ভিসেস অন্যতম। বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে ব্যবহৃত হচ্ছে দোহাটেকের ই-গভর্ন্যান্সভিত্তিক সফটঅয়্যার, ভোটার আইডি কার্ড এবং তথ্য সংরক্ষণ সফটঅয়্যার।

বাংলাদেশের নারীদের প্রযুক্তি অঙ্গনে অগ্রগতির জন্য তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজি ফোরাম। যার উদ্দেশ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে নারীদের শিক্ষিত এবং দক্ষ করে তোলা। বাংলাদেশ বিজনেস ম্যাগাজিনের প্রতিষ্ঠাতা তিনি প্রযুক্তি খাতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করে নারীর ক্ষমতায়নে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন। ব্যবসায়ে সাফল্য এবং দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ ‘বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাওয়ার্ড ২০১৭’ পেয়েছেন। এছাড়াও লুনা সামসুদ্দোহার ঝুলিতে রয়েছে দেশি-বিদেশি অসংখ্য সম্মাননা। যার মধ্যে অন্যতম ‘ওমেন লিডারশিপ অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড ২০১৫’, আন্তর্জাতিক অ্যাওয়ার্ড ‘গ্লোবাল ওমেন ইনভেনটর অ্যান্ড ইনোভেটর নেটওয়ার্ক (গুইন) ২০১৩’, ‘ওমেন ইন আইটি অ্যাওয়ার্ড ২০১৫’, ‘অনন্যা সেরা দশ ২০১৩’ প্রভৃতি।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়