বাংলাদেশ ব্যাংক

সাইবার হামলার শঙ্কায় সতর্কতা জারি

আগের সংবাদ

জঙ্গিদের আত্মসমর্পণে হট মেইলে মিলছে সাড়া

পরের সংবাদ

সিংগাইর পৌরসভা নির্বাচন

দলীয় প্রার্থীকে জয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ আ.লীগ, নীরব বিএনপি

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ

পঞ্চম দফায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পৌর নির্বাচনে মানিকগঞ্জের সিংগাইর পৌরসভায় আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারিত হয়েছে। সেই লক্ষ্যে মেয়র পদপ্রার্থী আওয়ামী লীগ মনোনীত আবু নাঈম মো. বাশার ও বিএনপি প্রার্থী এড. খোরশেদ আলম ভ‚ইয়া (জয়) মাঠে নেমেছেন। মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি সংরক্ষিত ৯ নারী কাউন্সিলর ও ২৭ পুরুষ কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতীক পেয়ে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভায় মোট ভোটার ২২ হাজার ৬০৩। এর মধ্যে পুরুষ ১১ হাজার ৭৫, নারী ১১ হাজার ৫২৮ জন।
পৌরসভা গঠিত হওয়ার পর বিগত ৩টি নির্বাচনের ফলাফল অনুযায়ী প্রথমবার আওয়ামী লীগ ও পরপর দুইবার বিএনপি প্রার্থী জয় লাভ করেন। বিএনপি এবারো চাচ্ছে ক‚টকৌশলে মেয়রের চেয়ারটি ধরে রাখতে। অপরদিকে আওয়ামী লীগ আগের নির্বাচনের বিভেদ ভুলে গিয়ে চ্যালেঞ্জ নিয়ে মাঠে নেমেছে। পৌর পিতার এ আসনটি পুনরুদ্ধারে মরিয়া তারা। তাই কোন্দল মিটিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নেমেছে দলটি। গত দুটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় মেয়র পদটি তাদের হাতছাড়া হয়। এবার দলীয় কোন্দল মেটানোর পাশাপাশি পৌর

এলাকার আওয়ামী লীগ অধ্যুষিত পূর্ব এলাকা থেকে কোনো প্রার্থী হয়নি। বিজয় ঠেকাতে এবার গলার কাঁটা নামের বিদ্রোহী প্রার্থী না থাকায় অনেকটাই সুবিধাজনক অবস্থানে আওয়ামী লীগ। মূল দলের সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে কাজ করছেন।
আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবু নাঈম বাশারের বাড়তি সুবিধা প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা বাউল সম্রাট আব্দুর রশিদ সরকারের পুত্র তিনি। উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পাশাপাশি সিংগাইর ডিগ্রি কলেজের ছাত্রলীগ প্যানেলের এজিএসও নির্বাচিত হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। ক্ষমতাসীন দল যেমন চাচ্ছে পৌর মেয়রের চেয়ারটি বাশারকে দিয়ে উদ্ধার করতে তেমনি পৌরবাসীর কাছে বাশারই এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। এ প্রসঙ্গে আবু নাঈম মো. বাশার বলেন, সারাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে উন্নয়নের জোয়ার বইছে সিংগাইর পৌরসভায় সে উন্নয়নের জন্য আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নির্বাচিত হওয়া একান্তভাবে প্রয়োজন। সেই চিন্তা থেকে পৌরবাসী আমাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করবেন বলে আমি আশা করি। নির্বাচিত হলে আমি একে আধুনিক পৌরসভায় রূপান্তরিত করে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করব।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, বিগত নির্বাচনে নৌকার ভোট বেশি থাকা সত্ত্বেও দুজন প্রার্থী থাকায় বিজয় সম্ভব হয়নি। এবার একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন চাইলেও ঐক্যবদ্ধ হয়ে একজনকে প্রার্থী করা হয়েছে বিজয় সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে।
এদিকে দলীয় কোন্দল, রাস্তাঘাট ও পৌরবাসীর কাক্সিক্ষত নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হওয়ায় এবারের নির্বাচনে অনেকটাই কোণঠাসা পরপর দুবারের নির্বাচিত মেয়র বিএনপি প্রার্থী এড. খোরশেদ আলম ভ‚ইয়া। নির্বাচনী মাঠে তাকে ছাড়া দলীয় তেমন কাউকে দেখা যাচ্ছে না। পৌরবাসীর অভিযোগ, বর্তমান সরকারের আমলে প্রত্যন্ত পল্লীসহ সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন হলেও সিংগাইর পৌরসভায় কাক্সিক্ষত উন্নয়ন হয়নি। দুবার নির্বাচিত হওয়া সত্তে¡ও পৌরসদরের গুরত্বপূর্ণ কলেজ রোডটি দীর্ঘদিনেও সংস্কার করা হয়নি। এছাড়া ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও পৌর এলাকা অপরিচ্ছন্নতার কারণে জনপ্রিয়তা প্রশ্নের সম্মুখীন বর্তমান মেয়র।

এ ব্যাপারে এড. জয় কলেজ রোড ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার বেহাল দশার কথা স্বীকার করে বলেন, ইতোমধ্যে ড্রেনেজের কাজ শুরু করা হয়েছে। বিএনপির নেতাকর্মীরা কৌশল অবলম্বন করে ভোটের মাঠে আছেন। পৌরবাসীর বিচার বিবেচনায় পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
উল্লেখ্য, ২০০১ সালে সিংগাইরকে পৌরসভা ঘোষণা করার পর পৌর প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ওই সময়ের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসা. কামরুন্নাহার। ২০০২ সালে ৩০ জুন সিংগাইর পৌরসভার প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। মাত্র ২৯ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মীর মো. শাহজাহান বিএনপি প্রার্থী প্রয়াত দেওয়ান মোজহারুল হক মহরকে পরাজিত করে প্রথম পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর ২০১১ সালের ১৭ জানুয়ারির নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী এড. খোরশেদ আলম ভ‚ইয়া ৬ হাজার ১৭৩ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মীর মো. শাহজাহান পান ৫ হাজার ৬৩৬ ভোট। তৃতীয় স্থানে অবস্থান করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী প্রয়াত এম এম আলমগীর হোসেন। এরপর সরাসরি দলীয় প্রতীকে ২০১৬ সালের ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপি প্রার্থী এড. খোরশেদ আলম ভ‚ইয়া মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী ছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মীর মো. শাহজাহান।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়