রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের প্রথম নারী চেয়ারম্যান লুনা মারা গেছেন

আগের সংবাদ

দেশে করোনায় মৃত্যু আরও ১৬, শনাক্ত ৪৪৩

পরের সংবাদ

হাইকোর্টের রায়ে পর্যবেক্ষণ

আ.লীগ সরকারকে নিশ্চিহ্নের ষড়যন্ত্র হয়েছিল কোটালীপাড়ায়

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৩:৪৭ অপরাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৪:২৯ অপরাহ্ণ

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিতকরণ) এবং আপিলের ওপর রায়ে পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ রায়ের পর্যবেক্ষণে বলেছেন, এই বোমা হামলার প্রচেষ্টার মাধ্যমে তৎকালীন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারকে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র হয়েছিলো।

পর্যবেক্ষণে আরও বলা হয়, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সমগ্র জাতিকে পিছিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছিলো। সে অবস্থা থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার উন্নত দেশ গঠনের চেষ্টা শুরু করলে তার (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) জনপ্রিয়তাকে ধ্বংস করতে ভয়ঙ্করভাবে চেষ্টা চালানো হয়। এটি দেশের জন্য একটি কালো অধ্যায়, জঘন ও বর্বরোচিত অধ্যায়। সেদিন কোটালীপাড়ায় বোমাগুলো ফুটলে বোমা পুঁতে রাখার স্থান থেকে চারপাশে এক কিলোমিটার ধ্বংসাবশেষে পরিণত হতো। মাটির নীচেও গভীর ক্ষত সৃষ্টি হতো। সবমিলিয়ে ওই হামলা সফল হলে চারপাশ ধ্বংস লীলায় পরিণত হতে পারতো।

২০০০ সালের ২০ জুলাই কোটালীপাড়ায় তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমাবেশস্থলের পাশে ৭৬ কেজি ওজনের বোমা পুঁতে রাখা হয়। এ বোমা বিস্ফোরণের মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

আরআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়