মিয়ানমারের সামরিক নেতাদের জন্য মার্কিন পণ্য রপ্তানি বন্ধ

আগের সংবাদ

ফুলশয্যার রাতে খাটে স্ত্রী, বর ব্যস্ত কম্পিউটারে! ছবি ভাইরাল

পরের সংবাদ

পণ্য আমদানি হবে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১ , ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১ , ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে সবধরনের পণ্য রপ্তানির পাশাপাশি আমদানিরও অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এখন থেকে এই বন্দর দিয়ে ব্যবসায়ীরা নিষিদ্ধ পণ্য ব্যতীত সবধরনের পন্য আমদানি-রপ্তানি করতে পারবে। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান, আইনমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ অ্যাডভোকেট আনিসুল হককে অনুমোদনের বিষয়টি অবগত করেন। পরে আইনমন্ত্রী আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজলের মাধ্যমে বন্দরের ব্যবসায়ীদের এই সুসংবাদটি দেন।

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ১৯৭৯ সাল থেকে ব্যবসায়িক কার্যক্রম শুরু হয়। শতভাগ রপ্তানিমুখী বন্দরটিকে ২০১০ সালে পূর্ণাঙ্গ স্থলবন্দর হিসেবে ঘোষণা করা হয়। বন্দর দিয়ে এতোদিন ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যসহ ৭টি পাহাড়ি রাজ্যে পাথর, সিমেন্ট, ছোট-বড় মাছ ও প্লাস্টিক সামগ্রীসহ ৫০ জাতের পণ্য রপ্তানি হত। অনুমোদন না থাকায় ব্যবসায়ীদের কোনো ধরনের পণ্য আমদানি করার সুযোগ ছিল না।

এদিকে বন্দর দিয়ে সব ধরনের পণ্য আমদানি-রপ্তানি অনুমোদন পাওয়ার খবরে সিএন্ডএফ ও আমদানি-রপ্তানিকারক ব্যবসায়ীরা আনন্দ প্রকাশ করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক আসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জানান, এখন থেকে এই বন্দর দিয়ে নিষিদ্ধ পণ্য ব্যতীত সবধরনের পন্য আমদানি-রপ্তানি করা যাবে। আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের একক প্রচেষ্টায় এটি সম্ভব হয়েছে। বন্দরের ব্যবসায়ীরা ওনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছে।

বন্দরের সিএন্ড এফ এজেন্ট আসোসিয়েশনের সভাপতি মোবারক হোসেন জানান, বন্দর দিয়ে সব পণ্য আমদানি-রপ্তানির অনুমোদনে এলাকায় অর্থনৈতিক ও উন্নয়ন আরো প্রসারিত হবে।

আমদানি-রপ্তানিকারক আসোসিয়েশনের উপদেষ্টা আব্বাস ভুঁইয়া বলেন, এই বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানির অনুমোদনের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই ব্যবসায়ীরা দাবি জানিয়ে আসছিল। অবশেষে আইনমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় ব্যবসায়ীদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়