স্বপ্নের বছর, ডিজিটাল বাংলাদেশ ও নিরাপদ সড়ক

আগের সংবাদ

শেখ জামালের গোল উৎসব

পরের সংবাদ

সড়ক দুর্ঘটনায় ৭১ টিভির সাংবাদিক ও আ.লীগ নেতা নিহত

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২১ , ৯:২৬ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৭, ২০২১ , ৯:২৭ অপরাহ্ণ

রাজধানীর গুলশান থানাধীন নদ্দা এলাকায় বেপরোয়া গতির বাসচাপায় গোপাল সূত্রধর (৩৪) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। তিনি বেসরকারি চ্যানেল ৭১ টেলিভিশনের ভিডিও এডিটর। গতকাল বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। গুলশান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসান গতকাল ভোরের কাগজকে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন। এদিকে শান্তিনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও বর্তমান থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন দুলাল (৫০) মারা গেছেন। গুলশান ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার ভোরে মারা যান তিনি।

গুলশান থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, গোপাল সূত্রধর মোটরসাইকেলে করে নদ্দা দিয়ে যাওয়ার সময় পেছন থেকে ভিক্টর ক্লাসিক পরিবহনের একটি বাস ধাক্কা দেয়। এতে করে তিনি মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যান ও বাসের চাকায় পিস্ট হয়ে গুরুতর আহত হন। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে জাতীয় অর্থপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (পঙ্গু হাসপাতাল) নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিনি আরো বলেন, ঘাতক বাসটি আটক করা গেলেও চালক পালিয়েছেন। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে নিহত ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও বর্তমান থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন দুলালের ছেলে মো. মনির হোসেন দিপু জানান, গত বৃহস্পতিবার ভোরে তার বাবা-মা ঢাকা সদরঘাট থেকে সিএনজিযোগে উত্তরা যাচ্ছিলেন। সিএনজিটি ভোর সাড়ে ৫টার দিকে শান্তিনগর মোড়ে পৌঁছালে রাজারবাগ থেকে দ্রুত গতিতে আসা একটি ড্রাম ট্রাক সিএনজিটিকে সজোরে ধাক্কা দিলে তার বাবা-মা গুরুতর আহত হন। নিহতের ছেলের অভিযোগ, যেই ট্রাকের চালক তার বাবা-মাকে আরোহী সিএনজিকে ধাক্কা দিয়েছে, সেটি পুরাতন রমনা থানার মাটি বহনকারী। ট্রাকটি থানা কম্পাউন্ড থেকে মাটি নিয়ে অন্যথ ফেলে রাজারবাগ দিয়ে আসার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটায়।

বিষয়টি রমনা থানা পুলিশও জানে। কিন্তু তারা ঘাতক ট্রাক ও এর চালককে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি। রমনা থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর থেকে আমরা ঘাতক ট্রাকটি শনাক্তে সিটিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। কিন্তু ট্রাকটি শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের পরিবারের ভাষ্য অনুযায়ী যেই ট্রাকটি আটক করা হয়েছে, সংশ্লিষ্টতা না পাওয়ায় সেটি ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তদন্তে থানা কনস্ট্রাকশনের কাজে ব্যবহৃত ট্রাক চালকের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে তাকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়