মেয়ের জন্মদিনে স্বস্তিকার নাচ

আগের সংবাদ

বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থী আটক

পরের সংবাদ

মহাশূন্যে বাড়ি বানাতে আর মাত্র ১৫ বছর!

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২১ , ১:৩৮ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৭, ২০২১ , ১:৫৭ অপরাহ্ণ

বিরক্ত হয়ে অনেকেই মাঝে মাঝে বলে থাকেন ‘আর থাকতে মনে চায় না এই জগতে’‘মনে চায় অন্য গ্রহে চলে যাই’ এ ধরনের কথা। মনে চাইলেও সম্ভব হয়ে উঠে না। সত্যিই কি আর ভালো লাগছে না এই দূষিত গ্রহে? অন্যত্র গিয়ে থাকতে পারলে বেশ ভালো হত বলে ভাবছেন?

আকাশকুসুম চিন্তা হলেও কিছুদিন পর হয়তো এটাও সম্ভব হয়ে যাবে। ফিনল্যান্ডের এক পদার্থবিদ জানাচ্ছেন, আর মাত্র ১৫ বছর পরেই এই সুযোগ পাবে মানবজাতি। অর্থাৎ, ২০৩৬ সাল নাগাদ মহাশূন্যে বসবাস শুরু করে দিতে পারবে মানুষ।

ফিনল্যান্ডের পদার্থবিদ পেকা জানহুনেন বলেছেন, মানবজাতি আর মাত্র পনের বছরের মধ্যেই স্পেস মেগাসিটির বাসিন্দা হতে পারবে।

অনেক বছর ধরেই মহাশূন্যে মানুষের বসবাসের প্রকল্প নিয়ে কাজ করে চলেছেন বিজ্ঞানীরা। এ ক্ষেত্রে মূলত চাঁদ আর মঙ্গল গ্রহের নামই উঠে এসেছে। তবে নতুন জায়গার নাম তুলে চমকে দিয়েছেন পেকা। তিনি পৃথিবী থেকে ৩২৫ মিলিয়ন মাইল দূরের ‘সেরেস’ নামের এক বামনগ্রহের কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি এই শহরের এক নকশাও তৈরি করে ফেলেছেন।

পেকা জানান, সেই শহরের একেকটি ভাসমান ফ্ল্যাটে ৫০ হাজার মানুষ থাকতে পারবেন। গোলাকার এই ফ্ল্যাটগুলি মাধ্যাকর্ষণের টান এড়িয়ে শূন্যে ভাসবে। চৌম্বকীয় ক্ষেত্র দ্বারা পরস্পরের সঙ্গে যোগ থাকবে বলে এরা অন্যত্র ছিটকে যাবে না।

মঙ্গল আর চাঁদ বাদ দিয়ে ‘সেরেস’কে কেন বেছে নেওয়া হল প্রশ্নে পেকা জানিয়েছেন, এই গ্রহটির জলবায়ু নাইট্রোজেন-সমৃদ্ধ। পৃথিবীর অনুরূপ জলবায়ু পাওয়া যেতে পারে সেখানে।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়