জিতলে দ্বিতীয় স্থানে উঠেবে বাংলাদেশ

আগের সংবাদ

হুমকির মুখে শিক্ষার্থীরা

পরের সংবাদ

ব্যাটিং কোচের নাম জানেন না সাকিব

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৪, ২০২১ , ১০:৪১ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৪, ২০২১ , ১০:৪১ অপরাহ্ণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সোমবার তৃতীয় ও সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচটি খেলতে নামবে টাইগাররা। আগের দুই ম্যাচে জেতায় বাংলাদেশের সামনে এবার ক্যারিবীয়দের হোয়াইটওয়াশ করার মিশন। তার আগে গতকাল চট্টগ্রামে পৌঁছে আজ অনুশীলনে সময় কাটিয়েছেন সাকিব আল হাসান-তামিম ইকবালরা। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের নেটে অনুশীলনের প্রাক্কালে হয়ে গেল এক মজার কাহিনী। বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচের নাম জানেন না সাকিব আল হাসান। তাই নাজমুল হোসেন শান্তকে তার জিজ্ঞেস করা, ‘কোচের নাম কী রে?’ জবাবে নামজুল বলে দিলেন বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ তথা ব্যাটিং পরামর্শকের নাম।

এই কয়েক দিন হলো বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং পরামর্শক হয়েছেন জন লুইস। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ শুরুর আগেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড তাকে নিয়োগ দেয়। সেটাকে সামনে রেখেই বাংলাদেশে আসেন লুইস। তারপর থেকে দলের সঙ্গে কাজ করে আসছেন। হয়তো এই কয়েক দিনে সাকিব ব্যাটিং কোচকে ঠিকমতো চিনে উঠতে পারেননি। তাই তো নাজমুল হোসেন শান্তকে প্রশ্ন করতে হলো তাকে।

অনুশীলনে যাওয়ার পর কোচের সাহায্য দরকার ছিল সাকিবের। কিন্তু কোচের নাম মনে ছিল না ওয়ানডের সেরা এই অলরাউন্ডারের। পাশেই নেটে ব্যাটিং করছিলেন নাজমুল হোসেন। উপায় না দেখে নাজমুলকে সাকিবের প্রশ্ন, ‘ব্যাটিং কোচের নাম কী রে?’ এরপর নাজমুলের নামটা বলে দিলে কোচকে সম্বোধন করার উপায় খুঁজে পান তিনি, ‘জন! লেগ স্ট্যাম্প প্লিজ!’ মজাটা সেখানে থামেনি। লুইস লেগ স্ট্যাম্প গার্ড দেখিয়ে দেয়ার পরও সাকিব কেন যেন তাকে বিশ্বাস করছিলেন না, ‘তোমাকে আমার বিশ্বাস হয় না। যদিও আমার তোমাকে বিশ্বাস করা ছাড়া উপায় নেই।’ সাকিব মুখে ঠাট্টার সুরে বললেন। মজা করে লুইসও উত্তরে বলেন, ‘কেন তুমি আমাকে বিশ্বাস করছ না?’

দিনের বাকিটা সময় ভালোভাবেই অনুশীলন করতে দেখা গেছে সাকিব আল হাসানকে। প্রথমে পেস বোলিংয়ের বিপক্ষে অনুশীলনের পর সাকিব যোগ দেন স্পিনারদের নেটে। মেহেদি হাসান মিরাজ, মেহেদি হাসান, তাইজুল ইসলাম ও আফিফ হোসেনদের বিপক্ষে ডানে-বাঁয়ে বল ফেলে এক-দুই রানের অনুশীলন করেন। এরপর যত সময় গড়িয়েছে, ব্যাট হাতে সাবলীলই দেখা গেছে তাকে। শেষের দিকে শট খেলার অনুশীলন করেছেন তিনি।

নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা সাকিব আল হাসান প্রথম ২ ম্যাচে নিজের নামের প্রতি ভালোই সুবিচার করেছেন। প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে জ¦লে উঠতে না পারলেও বল হাতে ৪ উইকেট শিকার করেন। ব্যাট হাতে রান করেছিলেন ১৯। পরের ম্যাচে দুর্বল প্রতিপক্ষ উইন্ডিজের বিপক্ষে সাকিব ব্যাটেও ঝলক দেখান। বল হাতে ২ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে করেন অপরাজিত ৪৩ রান। তাতে প্রথম ম্যাচে ৬ ও পরের ম্যাচে ৭ উইকেটে জিতে তামিম ইকবাল বাহিনী।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়