প্রমোশনের দাবিতে অনশন: অসুস্থ ৭ শিক্ষার্থী

আগের সংবাদ

এম্বুলদেনিয়ার দিনে রুটের আক্ষেপ

পরের সংবাদ

চাঁদা না দেয়ায় সোলার প্লান্টের রাস্তা বন্ধ করলেন পিডিবি কর্মকর্তা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৪, ২০২১ , ১০:২২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৪, ২০২১ , ১০:২৭ অপরাহ্ণ

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বাড়তি নিজস্ব সুবিধা না দেয়ায় ৩ মেগাওয়ার্ড বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পূর্ণ সোলার প্লান্টের কর্মকর্তা কর্মচারিদের যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে তাদের অবরুদ্ধ করে রাখলেন পিডিবির বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর তালুকদার। শনিবার থেকে রবিবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুর পর্যন্ত সোলার প্লান্টের প্রধান গেট অবরুদ্ধ করে রাখেন তিনি।

সোলার প্লান্টের প্রকল্প ব্যবস্থাপক ও লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সরিষাবাড়ী পিডিবির বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের ৮ একর জায়গায় ২০১৭ সালে ৩ মেগাওয়ার্ড বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পূর্ণ সোলার প্লান্ট স্থাপন করা হয়। এ সোলার প্লান্ট স্থাপনকালে পিডিবির কাছ থেকে ২০ বছরের চুক্তিভিত্তিক ভাড়ায় লিজ নেয়ার কথা উল্লেখ রয়েছে। এ চুক্তি ভিত্তিক পর্যন্ত পিডিবির রাস্তা সোলার প্লান্টের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা ব্যবহার করবে এমনটা লেখা আছে এবং ডিজাইনেও দেখানো আছে।

এর জন্য পিডিবিকে প্রতি বছর ১০ লাখ টাকা ভাড়া নিয়মিত দিয়ে আসছে সোলার প্লান্ট কর্তৃপক্ষ। সরিষাবাড়ী পিডিবির বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের নব্য যোগদানকৃত নির্বাহী প্রকৌশলী আবুবকর তালুকদার যোগদানের পর থেকেই অনৈতিকভাবে নিজস্ব অতিরিক্ত (চাঁদা) সুবিধা দাবি করে আসছে সোলার প্লান্টের প্রকৌশলী আনোয়ারুল কবীর সরকারের কাছে।

সোলার প্লান্ট কর্তৃপক্ষ এই অতিরিক্ত সুবিধা নিতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার বিকাল ৫টার দিকে সোলার প্লান্টের প্রধান গেটসহ রাস্তায় পিডিবির বৈদ্যুতিক তারের ড্রাম দিয়ে বন্ধ করে সোলার প্লান্টের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের অবরুদ্ধ রাখেন পিডিবির ওই কর্মকর্তা। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে নির্বাহী প্রকৌশলীর নির্দেশে তড়িঘড়ি করে সোলার প্লান্টের গেটে ও রাস্তায় রাখা বৈদ্যুতিক ড্রাম সরিয়ে ফেলে পিডিবির কর্মচারিরা।

এ বিষয়ে সোলার প্লান্টের প্রকল্প ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আনোয়ারুল কবীর সরকার বলেন, পিডিবির নির্বাহী কর্মকর্তা আবুবকর তালুকদার যোগদানের পর থেকেই আমাকে নানাভাবে হয়রানি ও বিভিন্ন বিষয়ে জোর দেখিয়ে আসছিল। এছাড়াও তিনি ব্যক্তিগতভাবে আর্থিক অতিরিক্ত সুবিধা চেয়ে আসছিলো। এই অর্থনৈতিক সুবিধা না দেয়ায় শনিবার বিকেলে প্লান্টের প্রধান গেটসহ রাস্তা বন্ধ করে আমাদেরকে অবরুদ্ধে রাখে। এ বিষয়ে সোলার প্লান্টের পক্ষ থেকে পিডিবির চেয়ারম্যানকে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সরিষাবাড়ী পিডিবির বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর তালুকদার বাড়তি আর্থিক সুবিধার চাওয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, সোলার প্লান্টের প্রকল্প ব্যবস্থাপকের কাছে অতিরিক্ত সুবিধা চাওয়ার কথাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। তিনি পিডিবির গণসংযোগ বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলার অজুহাতে বারবার বিষয়টি এড়িয়ে যান।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়