মহেখালীতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে শিশু নিহত, আহত ১০

আগের সংবাদ

সিংগাইরে ফসলি জমির মাটি কাটা বন্ধে স্মারকলিপি প্রদান

পরের সংবাদ

সাকিব-মিরাজের বোলিং দৃঢ়তায় উইন্ডিজ থামলো ১৪৮ রানে

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২১ , ৩:২৩ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২১ , ৪:২৮ অপরাহ্ণ

টাইগার বোলারদের বীরত্বে ৪৩.৪ ওভারে ১৪৮ রানে গুটিয়ে গেছে উইন্ডিজের ইনিংস। ফলে তামিম বাহিনীর সামনে ১৪৯ রানের জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায়।

এর আগে টস জিতে ব্যাট হাতে শুরুটা ভালো করতে পারেনি ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যানরা। মোস্তাফিজ অ্যাম্ব্রিসকে তুলে নিলে প্রথম উইকেট হারায় উইন্ডিজ। তবে দ্বিতীয় উইকেটে জশুয়া ডা সিলভা ও কিরন ওটলে মিলে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন। কিছুটা সফল হলেও খুব বেশি বড় জুটি গড়তে দেননি টাইগাররা। মিরাজে স্পিন বোলিং ঘূনিতে ওটলে ব্যক্তিগত ২৪ রানে তামিমের তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফিরেন। এর মাত্র দুই বল যেতে না যেতেই জশুয়া ডা সিলভাকে বোল্ড করেন মিরাজ। দলীয় মাত্র ৩৭ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে উইন্ডিজ।

এক ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া উইন্ডিজকে আরো চাপে ফেলতে প্রথমবারের মতো সাকিব আল হাসানের হাতে বল তুলে দেন অধিনায়ক তামিম। আর দলপতির আস্থার অবদান সাকিব দেন অ্যান্ড্রে ম্যাকার্থির উইকেট তুলে নিয়ে।

১৮তম ওভারের ৪র্থ বলে রান আউটে কাঁটা পড়েন কাইল মায়ার্স। আর তাতেই দলীয় ৪১ রানে ৫ম উইকেটের পতন ঘটে উইন্ডিজের। ঠিক যখনই অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদ এবং ঙ্ক্রুমাহ বোনারের সঙ্গে জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেয়ার চেষ্টা করছিলেন তখনই জেসনকে এলবি’র ফাঁদে ফেলেন সাকিব। আর তাতেই ২৪তম ওভারে এসে ৬৭ রানে ষষ্ঠ উইকেটের পতন উইন্ডিজের। পরের ওভারে বল করতে এসে ৪র্থ বলে ঙ্ক্রুমাহ বোনারকে (২০) বোল্ড করেন হাসান মাহমুদ। ৩০তম ওভারে আম্পায়ারের নটআউটের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে রেমন রেইফ্রিকে (২) এলবি’র ফাঁদে ফেলেন মিরাজ।

তবে নবম উইকেটে রোভমান পাওয়েল এবং আলজাররি জোসেপ মিলে ৩২ রানের দুর্দান্ত এক জুটি গড়েন। উইন্ডিজ ইনিংসের এটিই সর্বোচ্চ রানের জুটি। আর তাতেই দলীয় রান ১০০ পার করে সফরকারীরা। তবে ৩৭তম ওভারে জোসেপকে (১৭) লিটন দাসের তালুবন্দি করেন মোস্তাফিজ। ফলে দলীয় ১২০ রানে ৯ উইকেটের পতন ঘটে উইন্ডিজের। এরপর রোভমান পাওয়েলের দৃঢ়তায় উইন্ডিজের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৪৮ রান। উইন্ডিজের হয়ে সর্বোচ্চ ৪১ রান করা পাওয়েলকে ফেরান মিরাজ।

টাইগারদের হয়ে বল হাতে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট শিকার করেন মিরাজ। ৯.৪ ওভার বল করে ২৫ রানের বিনিময়ে ৪টি উইকেট নেন তিনি। এছাড়া সাকিব আল হাসান ১০ ওভারে ৩০ রানে ২টি মোস্তাফিজ ২ টি উইকেট নেন।

পিআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়