শুক্রবার থেকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহের শঙ্কা

আগের সংবাদ

ট্রাম্প অধ্যায়ের অবসান, বাইডেনের শপথ আজ

পরের সংবাদ

চসিক নির্বাচন

সন্ত্রাস ও কিশোর গ্যাং দমনের অঙ্গীকার দুই মেয়র প্রার্থীর

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২১ , ৯:৩৯ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২০, ২০২১ , ৯:৩৯ পূর্বাহ্ণ

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্য অনুযায়ী, নগরীর প্রায় ৫০০ স্পটে মাদক বেচাকেনা চলমান রয়েছে। এই তালিকায় নগরীর উত্তর ও দক্ষিণ আগ্রাবাদের নামও রয়েছে। আবার অন্যদিকে নৌঘাট ও বন্দরের ট্রান্সপোর্ট জোন এলাকা হওয়ার কারণে এই আগ্রাবাদ ওয়ার্ড দুটি হয়ে উঠেছে সন্ত্রাসের জনপদ। সংশ্লিষ্ট কারণে উত্তর আগ্রাবাদ ও দক্ষিণ আগ্রাবাদ, ২৮নং পাঠানটুলি, ৩৬নং গোসাইলডাঙ্গা, মাদারবাড়ি ওয়ার্ড এলাকাগুলোতে কিশোর গ্যাং ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বেশি। গত ২০২০ সালে নগরীতে খুন হওয়া ৪৫ জনের মধ্যে এই আগ্রাবাদ এলাকাতেই মাদক, সন্ত্রাস ও কিশোর গ্যাংয়ের কারণে খুন হয়েছেন ৩ জন। তাই এই এলাকাগুলোতে গণসংযোগকালে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থীরা সন্ত্রাস ও কিশোর গ্যাং দমনে নানা উদ্যোগ বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলেছেন।

গতকাল ১৯ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী নগরীর ২৪নং উত্তর আগ্রাবাদ ও ২৭নং দক্ষিণ আগ্রাবাদ ওয়ার্ড এলাকায় নির্বাচনী গণসংযোগ করেছেন। বক্তব্যে তিনি চট্টগ্রামের নতুন সমস্যা কিশোর গ্যাং প্রসঙ্গ তুলে ধরে বলেন, কিশোরদের খেলাধুলা ও বিনোদনের সুযোগ অতিমাত্রায় সংকুচিত হয়ে পড়ায় এ সমস্যার উদ্ভব হ?য়ে?ছে। অন্তত ওয়ার্ড এলাকার যেখানে পরিত্যক্ত খালি জায়গা পাওয়া যাবে সেখানে ছোট-বড় খেলার মাঠ, বিনোদন কেন্দ্র ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গড়ে তুলতে আমি উদ্যোগ নেব। তরুণ প্রজন্ম যাতে আউট সোর্সিংয়ে দক্ষতা অর্জন করে আত্মকর্মসংস্থান করতে পারে সে জন্য সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বিশেষ উদ্যোগ নেব।

আগ্রাবাদের আরেকটি সমস্যা জলাবদ্ধতা নিরসনের বিষয়ে তিনি বলেন, জোয়ারের পানি ও ভারী যানবাহনের কারণে ভঙ্গুর রাস্তাঘাট আগ্রাবাদ ওয়ার্ডের একটি বড় সমস্যা। খাল খনন, সংস্কার, পুনরুদ্ধার ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নে চলমান মেগা প্রকল্পের আওতায় মহেশখালকে দখলমুক্ত ও সংস্কার করা হবে। এ প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হলে আগ্রাবাদসহ চট্টগ্রামের কোনো এলাকাতেই জোয়ারের পানি ও জলাবদ্ধতার সমস্যা আর থাকবে না। মেয়র নির্বাচিত হলে এক্সেস রোড ও পোর্ট কানেকটিং রোডের চলমান উন্নয়নকাজ দ্রুত সময়ে সম্পন্ন করব।

অন্যদিকে, গতকাল বিএনপি মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন নগরীর মাদারবাড়ি, পাঠানটুলি ও আগ্রাবাদ ওয়ার্ড এলাকায় গণসংযোগ করেছেন। এ সময় পথসভায় দেয় বক্তব্যে তিনি আগ্রাবাদকে সন্ত্রাসমুক্ত ঘোষণা করার প্রতিশ্রুতি দেন। মেয়র নির্বাচিত হলে শুধু আগ্রাবাদ নয়, পুরো চট্টগ্রামকে সন্ত্রাস, মাদক ও কিশোর গ্যাংমুক্ত করব। ওয়ার্ডভিত্তিক জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সন্ত্রাসমুক্ত চট্টগ্রাম গড়ব। ধানের শীষের প্রতি আবেগ ভালোবাসায় উচ্ছ্বসিত জনসাধারণ ঐক্যবদ্ধভাবে আমাদের গণসংযোগে যোগ দিচ্ছেন। জনবিচ্ছিন্ন হওয়া আওয়ামী লীগ তাই ভোট ডাকাতির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। চট্টগ্রামবাসী ঐক্যবদ্ধভাবে সন্ত্রাসীদের মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। ২০১৮ সালের নির্বাচনে পুলিশের যে ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে তা এবারের নির্বাচনে ফিরিয়ে আনার মোক্ষম হাতিয়ার। সন্ত্রাসী কার্যক্রম মোকাবিলায় তারা পেশাদারত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে তার প্রমাণ দেবেন।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়