শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে আলোচনায় ২ সাংবাদিক

আগের সংবাদ

বাঁশখালীতে বালুখেকো সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্য

পরের সংবাদ

পিএসজি যাচ্ছেন মেসি!

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২১ , ৯:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৯, ২০২১ , ৯:১১ অপরাহ্ণ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে বার্সেলোনার বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকেই লিওনেল মেসির অন্য ক্লাবে নাম লেখানোর আলোচনা উঠে। ক্লাব ছাড়তে চাওয়ার ঘোষণা দিয়ে স্বয়ং মেসিই সেই আলোচনার জন্ম দেন। যে কারণে মেসির নামের সঙ্গে জুড়ে যায় ম্যানচেস্টার সিটি, ইন্টার মিলান ও পিএসজির নাম। এতদিন সেই আলোচনা ভক্ত-সমর্থকরাই চালিয়ে নিয়ে এসেছেন। এবার সেখানে যোগ দিল পিএসজিও। ফরাসি দলটির পরিচালক লিওনার্দো আরাহো জানিয়েছেন, দলবদলের ক্ষেত্রে মেসি তাদের রাডারে আছেন। অর্থাৎ আর্জেন্টাইন জাদুকরের দিকে পাখির চোখ করে রেখেছে ফরাসি জায়ান্টরা। সে ক্ষেত্রে মেসিকে নিতে আপ্রাণ চেষ্টা করবে তারা।

আগামী জুনের শেষ দিকে বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির চুক্তি শেষ হয়ে যাচ্ছে। আর সেই সুযোগটাই নিতে চায় পিএসজি। ক্লাবটির ব্রাজিলিয়ান পরিচালক লিওনার্দো বলেন, ‘মেসির মতো গ্রেট খেলোয়াড়রা তো পিএসজির তালিকায় সবসময়ই থাকে। যদিও এটা নিয়ে কথা বলা বা স্বপ্ন দেখার সময় এখনো আসেনি। তবে আমরা এই বিষয়টা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণের জন্য আমাদের আলোচনার টেবিলে থাকবে।’ পিএসজি পরিচালক আরো যোগ করেন, ‘আসলে আমরা এটা নিয়ে এখনো বসিনি। আমাদের এই চেয়ারটা সংরক্ষিত আছে, যদি কখনো হয়। (মেসির চুক্তিতে) আরো চার মাস সময় আছে। এখন যে সময় চলছে, অনেক কিছুই হতে পারে।। বলা যায় সে আমাদের রাডারে আছে।’

এর আরো আগে পিএসজির সঙ্গে মেসির নাম জড়িয়েছে। তার কারণ নেইমারের বক্তব্য। পিএসজি ফরোয়ার্ড এক বক্তব্যে জানিয়েছিলেন, মেসির সঙ্গে আবারো একত্রে খেলার ইচ্ছা তার। তাদের মধ্যে নাকি এখনো নিয়মিত যোগাযোগ হয়। এ ক্ষেত্রে সুয়ারেজকে নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রæপ তাদের ভরসা। অবশ্য নেইমারের এমন বক্তব্যের পর অনেকেই ভেবেছিলেন, নেইমার বুঝি ফের বার্সায় ফিরতে চান। সে কারণেই বোধহয় মেসির সঙ্গে খেলার ইচ্ছা পোষণ করেছেন তিনি।

এদিকে স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে ম্যাচে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছিলেন লিওনেল মেসি। রেফারির শেষ বাঁশি বাজার অল্প আগে লাল কার্ড দেখেন তিনি। মেজাজ হারিয়ে বিলবাওয়ের এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে উগ্র আচরণ করে বসেন বার্সা অধিনায়ক। এই অভিযোগে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সাহায্য নিয়ে মেসিকে লাল কার্ড দেখানো হয়।

সেই ঘটনায় এবার ক্ষমা চাইলেন মেসি। ড্রেসিংরুমে ফিরেও নাকি সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন বার্সেলোনা সুপারস্টার। স্প্যানিশ দৈনিক মার্কার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রবিবার স্প্যানিশ সুপারকোপার ফাইনাল শেষে ড্রেসিংরুমে মেসি খুবই হতাশাগ্রস্ত ছিলেন। একে তো দলের ফাইনাল হার অন্যদিকে নিজের লালকার্ড। দুইয়ে মিলিয়ে ফুটবল মঞ্চের সেরা তারকা ছিলেন চরম হতাশ। পরে মাঠের পারফরম্যান্স এবং নিজের লাল কার্ডের জন্য সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চান তিনি। এ ঘটনায় আর্জেন্টাইন অধিনায়ক ঘরোয়া ফুটবলে দুই থেকে চার ম্যাচ পর্যন্ত নির্বাসিত হতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে। কেউ আবার বলছেন ১২ ম্যাচ পর্যন্ত নিষিদ্ধ হতে পারেন তিনি।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়