‘ফিরে দেখা’ সিনেমায় স্পর্শিয়া সঙ্গে নিরব

আগের সংবাদ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত চলতি মাসেই: জবি উপাচার্য

পরের সংবাদ

রাণীনগরে ঘটনার ১৬ মাস পর হত্যা মামলা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৬:০৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৬:০৫ অপরাহ্ণ

নওগাঁর রাণীনগরে ঘটনার দীর্ঘ ১৬ মাস পর হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২০১৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর গলায় দড়ির ফাঁস দিয়ে মুনিরা (৪৫) আত্নহত্যা করেছে এমন ঘটনায় রাণীনগর থানায় ইউডি মামলা দায়ের করেন মুনিরার স্বামী আজিজুল। এরপর তদন্তে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে এমন ময়না তদন্তের রির্পোটের ভিত্তিতে রাণীনগর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কালীগ্রাম সরদারপাড়া গ্রামে।

জানা গেছে, উপজেলার কালীগ্রাম সরদারপাড়া গ্রামের আফজাল সরদারের ছেলে আজিজুল একই উপজেলার রাতোয়াল গ্রামের ইয়াকুব আলীর মেয়ে মুনিরা বিবিকে ৩০ বছর আগে বিয়ে করেন। সংসার চলাকালো তাদের সংসারে দুই ছেলে ও এক মেয়ে জন্মগ্রহণ করে। ঘটনার দিন গত ২০১৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২ টার সময় মুনিরার মা সহিদা বিবি মোবাইল ফোনে জানতে পারেন যে তার মেয়ে বাড়ীর খলিয়ানে গাছের সাথে গলায় দড়ি দিয়ে আত্নহত্যা করেছে। এঘটনায় ওই দিনই মুনিরার স্বামী আজিজুল বাদী হয়ে রাণীনগর থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। এঘটনার দীর্ঘ সময় পর ময়না তদন্তের রির্পোট আসে মুনিরাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এঘটনায় শনিবার মুনিরার মা সহিদা বিবি বাদী হয়ে ময়না তদন্তের রির্পোটের প্রেক্ষিতে কে বা কাহারা তার মেয়েকে হত্যা করেছে মর্মে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে রাণীনগর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি শাহিন আকন্দ বলেন, গলায় দড়ি দিয়ে স্ত্রী মুনিরা আত্নহত্যা করেছে মর্মে প্রথমে স্বামী আজিজুল ঘটনার দিন থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করেন। এরপর ময়না তদন্তে শ্বাসরোধে হত্যার রির্পোট আসে। এতে মুনিরার মা সহিদা বিবি বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলাটি সুষ্ঠু তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়