তেজগাঁওয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দগ্ধ ৪ জন শঙ্কামুক্ত

আগের সংবাদ

বন্ধ চিনিকল খুলে দেয়ার দাবি বাম গণতান্ত্রিক জোটের

পরের সংবাদ

ব্রিসবেনে লড়াই জমিয়ে তুলল ভারত

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৭:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৭, ২০২১ , ৭:৩৫ অপরাহ্ণ

জিতলেই সিরিজ জয়। আর হারলে সিরিজে হার এমন এক কঠিন পরিসংখ্যান নিয়ে ব্রিসবেনের দ্য গাব্বায় খেলতে নামে দুদল। ম্যাচের প্রথম দিকে মনে হয়েছিল ভারত ম্যাচটিতে একচ্ছত্র আধিপত্য দেখাবে। তবে এর মাঝে বৃষ্টি বাগড়া দেয়। রবিবার ভারত পুরো দিন ব্যাট করে সব মিলিয়ে সবগুলো উইকেট হারিয়ে ৩৩৬ রান করতে সমর্থ হয়।

অস্ট্রেলিয়া নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩৬৯ রান করে। ফলে প্রথম ইনিংস শেষে ভারতের চেয়ে অজিরা ৩৩ রানে এগিয়ে যায়। এরপর রবিবার নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে খেলতে নেমে ২১ রান তুলে কোনো উইকেট না তুলে দিন শেষ করতে সমর্থ হয়। ফলে তৃতীয় দিন শেষে অস্ট্রেলিয়া ৫৪ রানে এগিয়ে রয়েছে। এদিকে ভারত এই রান করায় এখন জমে উঠেছে ম্যাচটি। আজ ভারত যদি অজি পেসারদের গুঁড়িয়ে দিতে পারেন তাহলে ম্যাচটির ফলাফল ভারতের দিকে চলে যেতেও পারে।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে বোলিংয়ে সবচেয়ে বেশি উজ্জ্বল ছিলেন জস হ্যাজেলউড। তিনি ৫৭ রানে ৫টি উইকেট তুলে নেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২টি করে উইকেট তুলে নেন মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স। তারা সবাই পেসার। তারাই ভারতকে অলআউট করে দেন। কিন্তু শার্দুল ও ওয়াশিংটন সুন্দর তাদের গতিকে কোনো পাত্তাই দেননি। আর তাই তো ভারত চ্যালেঞ্জিং রান তুলতে সমর্থ হয়েছে।

বৃষ্টি বিঘ্নিত দ্বিতীয় দিনে ভারত ২ উইকেট হারিয়ে ৬২ রান তোলে। রবিবার বড় রান তোলার জন্য ভারত তাকিয়ে ছিল রাহানে এবং পূজারার দিকেই। ভালো শুরু করেও লম্বা ইনিংস খেলতে পারেননি দুজনের কেউই। তবুও দিনের শেষে ভারত ৩৩৬ তোলে ওয়াশিংটন এবং শার্দুলের ব্যাটে ভর করে।

ব্রিসবেন টেস্টে প্রথম একাদশে জায়গা দেয়া হয়েছিল দল ইনজুরি আক্রান্ত হওয়ায়। সেই ভরসা তারা রাখেন। সপ্তম উইকেটে ১৮৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ওয়াশিংটন ও শার্দুল। ব্রিসবেনে শনিবার শেষ সেশন বৃষ্টির জন্য বাতিল হয়ে যাওয়ায় রবিবার আধ ঘণ্টা আগে খেলা শুরু হয়। অস্ট্রেলিয়ার পেসারদের সামলে ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন ২ অভিজ্ঞ ভারতীয় ব্যাটসম্যান। বিপদ ডেকে আনেন প্যাট কামিন্স। দুরন্ত এক বলে চেতেশ্বর পূজারাকে আউট করেন তিনি। ৯৪ বলে ২৫ রান করেন তিনি।

পূজারা ফিরলেও ভারত লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিল। ওপেনার হিসেবে এই সিরিজে বারবার ব্যর্থ হলেও ৫ নম্বরে নেমে শুরুটা খারাপ করেননি ময়াঙ্ক আগরওয়াল। অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানের সঙ্গে ৩৯ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তিনি। কিন্তু ৯৩ বলে ৩৭ রান করে মিচেল স্টার্কের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। লাঞ্চের আগে এই উইকেট না হারালে সেশনটা নিজেদের দখলে রাখতেই পারত ভারত।

লাঞ্চ থেকে ফিরে দ্বিতীয় বলেই উইকেট দিয়ে দেন ময়াঙ্ক ৭৫ বলে ৩৮ রান করে। জস হ্যাজেলউডের বলে স্লিপে ধরা পড়েন তিনি। এই অবস্থায় ঋষভ পন্তের ওপরই ভরসা করছিল ভারত। কিন্তু সফল হননি তিনি। হ্যাজেলউডের বাউন্সার ছেড়ে দেয়ার বদলে স্লিপের মাথার ওপর দিয়ে পাঠাতে গেলেন পন্ত। কিন্তু ধরা পড়ে যান ক্যামরন গ্রিনের হাতে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়