ভারতে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু

আগের সংবাদ

সাংবাদিক হিলালী ওয়াদুদ চৌধুরীর দাফন সম্পন্ন

পরের সংবাদ

স্বপ্ন পূরণের প্রত্যয়ে এবারের মিরাক্কেলে নারায়ণগঞ্জের ছেলে রাশেদ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৬, ২০২১ , ১:৪৪ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৬, ২০২১ , ৩:২৯ অপরাহ্ণ

এপার থেকে ওপার দুই বাংলায়ই জনপ্রিয় অনুষ্ঠান মিরাক্কেল। বিশেষ করে এপার বাংলাতে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পেছনে বড় কারণ প্রত বছরই বাংলাদেশের কোনো তরুণের অংশগ্রহণ। এবার আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স মীরাক্কেলের ১০ম আসরের মূল পর্বে জায়গা করে নিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নাট্যকলা বিভাগের ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী আফনান আহমেদ রাশেদ।

এছাড়াও তিনি এবারের আসরের অন্যতম সেরা প্রতিযোগী হিসেবেও রয়েছেন সবার পছন্দের তালিকায়। জানা গেছে, টুকটাক রম্য লেখালেখির সুবাদেই মীরাক্কেলে রাশেদের অডিশন দেয়া। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ঢাকায় মীরাক্কেল টিমের অডিশনের মাধ্যমে বাছাই করা হয় বাংলাদেশি প্রতিযোগীদের। মীরাক্কেল শোর পরিচালক শুভঙ্করের সামনে অডিশনে দিয়ে অনেক প্রতিযোগীদের মধ্যে মীরাক্কেলের মূল পর্বে জায়গা করে নেয় রাশেদ।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ছেলে রাশেদের ছোটবেলা থেকেই কমেডি নিয়ে নেশা জন্মে যায়। এর আগে দেশ-বিদেশের বেশ কয়েকটা কমেডি শো-এ অংশ নিয়ে সাড়া জাগিয়েছেন রাশেদ। মীরাক্কেল-১০ এর এবারের আসরে হট ফেবারিট রাশেদ সকলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। রাশেদের এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত বিভাগীয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাই।

এবিষয়ে রাশেদের সঙ্গে কথা বলে ভোরের কাগজ লাইভ। তিনি জানান, কয়েক বছর আগে থেকে টুকটাক রম্য লেখালেখি শুরু করি। সেখান থেকে স্বপ্ন জাগে মীরাক্কেলের মতো বড় মঞ্চে নিজেকে দেখা। প্রথম যখন স্টেজ-এর পেছন থেকে মিরের কণ্ঠে নিজের নামটা শুনতে পাই, সে এক ভয়াবহ সুন্দর অনূভুতি।

‘স্ট্যান্ড আপ কমেডি’ নিয়ে বড় পরিসরে কাজ করার ইচ্ছা আছে কি না জানতে চাইলে বলেন, নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থী আমি। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার সঙ্গে যেহেতু এই বিষয়টার সম্পৃক্ততা রয়েছে, তাই এটি নিয়ে কাজ করার আগ্রহ রয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে কিছু তরুণ ‘স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান’ তৈরি হয়েছেন, যারা মিরাক্কেলে পারফর্ম করেছেন। তাদের কাছ থেকেও আমি উৎসাহ পাই। আমার বিশ্ববিদ্যালয় জীবন মাত্র শুরু হয়েছে। যদি ‘স্ট্যান্ড আপ কমেডি’ নিয়ে কাজ করে আমি আমার অদূর ভবিষ্যৎ দেখতে পাই, তবে এটি নিয়ে ক্যারিয়ার গড়ারও পরিকল্পনা রয়েছে।

পরিবার থেকে সমর্থন কেমন জানতে চাইলে রাশেদ বলেন, আমার পরিবার থেকে আমি পূর্ণ সমর্থন পাচ্ছি। পরিবার আমার কাজে যথেষ্ট উৎসায় দেয়।

মিরাক্কেলের প্রতিবারের সিজনের মতোই এবারও যেন বাংলাদেশের হয়ে শেষ পর্যন্ত লেগে থেকে বড় সফলতা নিয়ে আসতে পারেন, সেই কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন রাশেদ।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়