সড়ক-মহাসড়কে এখন মোটরসাইকেল ‘ত্রাস’

আগের সংবাদ

কোটিপতি বাড়ছে সরকারের নানা সুবিধায়

পরের সংবাদ

পুঁজিবাদ অর্থনীতিতে আয় বৈষম্য বাড়বেই

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২১ , ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০২১ , ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ

শ্রেণি বৈষম্য বা আর্থিক বৈষম্য সমাজের ওপর এক ধরনের প্রভাব ফেলে। করোনাকালে এটা আরো বড় আকারে দেখা দিয়েছে। আমাদের খেয়াল রাখতে হবে যেন, এ ধরনের বৈষম্য সৃষ্টি হতে না পারে। আশা করছি, সরকার এ বিষয়ে সুনজর দেবে।
করোনা মহামারির আগে থেকেই দেশে আয় বৈষম্য বাড়ছিল। ক্রমান্বয়ে আয় বৈষম্য বেড়েই চলেছে। কেবল মাথাপিছু আয় দিয়ে উন্নয়নকে বিচার করলে চলবে না। যে প্রবৃদ্ধি অর্জিত হচ্ছে, তার ভাগ যেন সমাজের প্রান্তিক মানুষ পায় সেটা নিশ্চিত করতে হবে। কাউকে পেছনে ফেলে রেখে প্রকৃত উন্নয়ন হয় না। আমাদের দুই অঙ্কের প্রবৃদ্ধি হলো কিন্তু সেটা যদি সমাজের নিচু তলায় না যায়, তাহলে এই প্রবৃদ্ধি দিয়ে কোনো লাভ নেই। নব্য উদারবাদী পুঁজিবাদ অর্থনীতিকে ভালো কিছু দিবে না। বাংলাদেশে প্রায় সোয়া এক কোটি মানুষের মাথাপিছু আয় ৪ হাজার মার্কিন ডলারের উপরে। অথচ কর দেন মাত্র ২০ লাখ মানুষ। তাই রাষ্ট্রযন্ত্রকে উচ্চ আয়ের মানুষের কাছ থেকে কর আদায় বিশেষ করে প্রগতিশীল কর ব্যবস্থা কার্যকর করতে শক্তিশালী ভ‚মিকা নিতে হবে।
পুঁজিবাদ অর্থনীতিতে আয় বৈষম্য বাড়বেই। এখন সেটাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারাই সরকারের সাফল্যের জায়গা। আমি বিশ্বাস করি, সরকার এদিকে গুরুত্ব দিবে এবং শ্রেণি বৈষম্য কমাতে সক্ষম হবে। তবে ক্যাপিটালিজম কনসেপ্টে শ্রেণি বৈষম্য থাকবেই, শ্রেণি বৈষম্য তৈরি করে। ক্যাপিটালিজম আর স্যোশিওলিজম এক বিষয় না।
করোনার সময়ে প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নে কতখানি স্বচ্ছতা ছিল সেদিকেও দেখা দরকার। এ বিষয়ে আমার কোনো গবেষণা নেই। তাই আমি খুব বেশি বলতে পারব না। তবে যারা বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করছেন তাদের আরো ভালোভাবে তদারকি করা দরকার।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়