শ্রমিকদের নামে একাউন্ট, টাকা তুলছেন চেয়ারম্যানরা

আগের সংবাদ

সাকরাইনের ঘুড়ি বিক্রির উৎসবে মেতেছে পুরান ঢাকা

পরের সংবাদ

রূপনগর খাল তুরাগ পর্যন্ত নিতে চান আতিক

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৩, ২০২১ , ৬:৪৬ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০২১ , ৬:৪৬ অপরাহ্ণ

রূপনগর আবাসিক এলাকা থেকে রূপনগর খাল হয়ে নৌকায় করে তুরাগ নদী পর্যন্ত যেতে চান ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) মিরপুরের রূপনগর খাল পরিদর্শন শেষে আতিকুল ইসলাম বলেন, এক সময় রূপনগর খালে অনেক আবর্জনা ছিল। সেগুলো পরিষ্কার করা হয়েছে। প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০ জন কর্মী কাজ করে ১৫ দিনে খালটি পরিষ্কার করেছে।

এ সময় ডিএনসিসির সাত নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তফাজ্জল হোসেন টেনু, ছয় নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তাইজুল ইসলাম বাপ্পি, ডিএনসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থ্যাপনা কর্মকর্তা কমডোর এম সাইদুর রহমান মেয়রের সঙ্গে ছিলেন। খালটি প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা এবং সর্বোচ্চ ৬০ ফুট চওড়া। এখন কাজ হচ্ছে খাল এবং এর আশপাশের অংশ সুন্দর করা। খালের পাড়ে প্রাথমিকভাবে গাছ লাগানো হবে। এরপর সাইকেল লেন তৈরি করা হবে। এই খালের সঙ্গে তুরাগ নদীর সংযোগ করা হবে।

মেয়র বলেন, খাল পুরোপুরি পরিষ্কার হলে স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেক ধরনের সুবিধা হবে। এই এলাকায় মনিপুর স্কুল, কমার্স কলেজ এবং একটি বিশ্ববিদ্যালয়সহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে। শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সময় প্রধান সড়কে চাপ পড়ে। রূপনগর খালের পাশে ওয়াকওয়ে এবং সাইকেল লেন করতে পারলে সবাই যাতায়াত করতে পারবে। এখানে ওয়াক ওয়ে এবং সাইকেল লেন করব। সবুজায়নের জন্য ইতিমধ্যে গাছ লাগানো হয়েছে। খালের পাড়ে থাকা সব অবৈধ স্থাপনা নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এর আগে তিনি ডিএনসিসি কর্তৃক পরিষ্কার করা রূপনগর খাল পাড় দিয়ে হেঁটে প্রায় এক কিলোমিটার পরিদর্শন করেন। পরে রূপনগর আবাসিক এলাকার একটি সড়কের উপর বাচ্চাদের সাথে কিছুক্ষণ ক্রিকেট খেলেন। পরে রূপনগর খালের পাড়ে একটি আম গাছের চারা রোপণ করেন।

রূপনগর খাল পরিদর্শন শেষে দুপুর দেড়টায় মেয়র আতিকুল ইসলাম মোহাম্মদপুর বিআরটিসি বাস ডিপো পরিদর্শন করেন। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ডের এই অংশে যানজট কমানোর জন্য বাস ডিপোর সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে সড়ক প্রশ্বস্ত করা হবে বলে তিনি জানান। বিআরটিসি চেয়ারম্যান মোঃ এহছানে এলাহী, ৩১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম সেন্টু ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ এ সময় উপস্থিতত ছিলেন। তারপর ৩১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম সেন্টু ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসিফ আহমেদকে সাথে নিয়ে ডিএনসিসি মেয়র তাজমহল ঈদগাহ মাঠ ও শহীদ পার্ক মাঠ পরিদর্শন করেন।

 

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়