শেষ হলো প্রিয়াঙ্কার ‘টেক্সট ফর ইউ’

আগের সংবাদ

সভাপতির বিচার দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

পরের সংবাদ

যারা গাড়ি চোর তারাই দোকান লোপাটকারী

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১০, ২০২১ , ৭:৪৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১০, ২০২১ , ৭:৪৫ অপরাহ্ণ

গাড়ি চোরকে পাকড়াওয়ের তদন্ত করতে গিয়ে মিললো আরেক টুইস্ট। এ যেন কেঁচো খুঁড়তে সাপ। যারা গাড়ি চোর তারাই দোকান লোপাটকারী। চুরি করা গাড়ি ব্যবহার করেই এ কাজ করেন তারা। এসব কাজে আগে থেকেই রেকি করে তারা। চক্রটির সদস্যরা এতটাই দক্ষ যে ৫-৭টি দোকান ডাকাতি বা লোপাটে আধ ঘণ্টার বেশী সময়ও নেয় না তারা।

গাড়ি চুরি ও দোকান লুট চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে রবিবার (১০ জানুয়ারি) ভোরের কাগজকে এসব তথ্য জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিবি লালবাগ বিভাগের সংঘবদ্ধ অপরাধ ও গাড়ি চুরি প্রতিরোধ টিমের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) মধুসূদন দাস। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সিদ্দুকুর রহমান (৪৫), নুরু মিয়া (৩৪), হেমায়েত হোসেন ওরফে হিমু (৩৪) আবুল বাশারকে (২২)। গাজিপুরের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে গত শনিবার তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ বিষয়ে রবিবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানী মিন্টুরোডের ডিবি কার্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে একটি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় ডিবি প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, মিরপুর এলাকায় চুরির ঘটনায় গত ৬ জানুয়ারি, মিরপুর মডেল থানায় একটি মামলা হয়। গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগ মামলার সমান্তরাল তদন্ত শুরু করে।

সেই সূত্র ধরেই এ চক্রের ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেয়া এসি মধুসূদন দাস বলেন, গাড়ি চুরির ক্ষেত্রে পলাতক সহযোগী কিশোরগঞ্জ জেলার কাশেম (২৮) ও বরগুনা জেলার নাসির (৩১) অত্যন্ত কৌশলে দিনের বেলায় ফেরিওয়ালা সেজে মালিকরা গাড়ি কোথায় রাখেন তা দেখে আসতেন। দোকান ও বাড়ীতে নিরাপত্তাকর্মী নেই এমন গাড়ি নির্ধারণ করে চুরি করতেন। চুরি শেষে আসা-যাওয়ার পথেই দোকানও রেকি করতেন। তারপর আলোচনা সাপেক্ষে চক্রটি গভীর রাতে বা সুবিধামতো সময়ে কাটার দিয়ে দোকানের তালা-শাটার কেটে টাকা মোবাইলসহ মূলমান সামগ্রী লুট করে দ্রুত গাড়িযোগে পালিয়ে যায়। এছাড়াও সিডিএমএস পর্যালোচনা দেখা যায় যে, গ্রেপ্তার সিদ্দুকুর রহমান নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানার ডাকাতি মামলা, ফরিদপুর কোতোয়ালী থানার চোরাচালান মামলা, ডিএমপি শাহআলী থানার জালনোট মামলা ও সূত্রাপুর থানার মাদক মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। গ্রেপ্তার নুরু মিয়া ডিএমপি দারুসসালাম থানার মাদক মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। হেমায়েত হোসেন ধানমন্ডি থানার খুনের মামলা, মিরপুর মডেল থানার মাদক মামলা, শাআলী থানার মাদক মামলা ও পল্টন থানার চুরির মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।

তিনি আরো বলেন, চক্রটি গত ডিসেম্বর জুড়ে অর্ধশতাধিক চুরি ও ডাকাতির ঘটনা ঘটিয়েছে। এসব কাজে তারা আগে চুরি করা গাড়ি ব্যবহার করেছে। এমনও হয়েছে এক রাতে তারা আধা ঘণ্টার ব্যবধানে ৭-৮টি স্থানে চুরি-ডাকাতি করে পালিয়ে গেছে। চক্রের গ্রেপ্তার হওয়া চারজনকে বিশদ জিজ্ঞাবাদের জন্য মিরপুর থানায় করা মামলায় আদালতে পাঠানো হয়েছে। ৭ দিনের রিমাণ্ড আবেদন করা হবে। গত ৬ জানুয়ারি মিরপুর মডেল থানায় হওয়া মামলায় ঢাকা মেট্রো-গ-১২-৭৬৩২ চুরি হওয়া প্রাইভেটকারটি গাজীপুর মহানগরের গাছা থানাধীন এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। ওই গাড়ির পেছনের ডালা খুলে একটি তালা কাটার যন্ত্র ও লাগেজ উদ্বার করা হয়। এছাড়াও তাদের থেকে বরিশাল মেট্রো-ল-১১-২৭৩৮ লেখা একটি মোটরসাইকেলও জব্দ করা হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়