খেলেই উড়াল দিলেন মেসি

আগের সংবাদ

নিউজ ফ্ল্যাশ

পরের সংবাদ

বেদখলী প্রত্নস্থল সবার জন্য উন্মুক্ত করার সুপারিশ

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৩, ২০২০ , ৭:৪৬ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ২৩, ২০২০ , ৭:৪৬ অপরাহ্ণ

দেশের যেসব প্রত্নস্থল বিভিন্ন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর দখলে রয়েছে তা দ্রুত দখলমুক্ত করে তা প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণে আনা এবং সেগুলোর উন্নয়ন করার পরে সর্বসাধারণের জন্য উম্মুক্ত করার সুপারিশ করেছে জাতীয় সংসদের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি। বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির ১৩তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়েছে।

কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন (রিমি) এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, কাজী কেরামত আলী এবং অসীম কুমার উকিল বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে প্রত্নস্থলসমূহে অবৈধ দখলকৃত জায়গা দখলমুক্তকরা এবং এ সংক্রান্ত চলমান মামলার বিষয়ে কমিটিকে অবহিতকরা হয়। কমিটি প্রতিটি প্রত্নস্থল সম্পর্কে তথ্যসহ স্বচিত্র বিস্তারিত বর্ণনা অধিদপ্তরের ওয়েবপোর্টালে অন্তর্ভুক্তির কথা বলেছে। সেই সঙ্গে এগুলো জনগণের মাঝে প্রচারণার অংশ হিসেবে প্রত্নস্থল সম্পর্কে তথ্যসমৃদ্ধ রঙিন লেমিনেটেড লিফলেট/ব্রশিয়ার করারও সুপারিশ করে।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, ইতোমধ্যে সোনারগাঁয়ের পানাম নগর, নারায়ণগঞ্জের গাজীগঞ্জ কেল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ৬টি প্রত্নস্থল দখলমুক্ত করা হয়েছে। যার উন্নয়ন করে জনগণের জন্য উম্মুক্ত করার কথাও বলেছে কমিটি।

বৈঠকে দুর্গম প্রত্নতাত্বিক নির্দশনসমূহে জনসাধারণের যাতায়াতের পথ সুগম করা কথাও বলা হয়েছে। এবং মাঠপর্যায়ে কর্মরত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তাদের স্ব-স্ব কর্মস্থলের প্রত্নবস্তু সম্পর্কে সম্যক ধারণা অর্জনের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এছাড়া স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি ভবন নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন অব্যাহত রাখতে কমিটি সুপারিশ করে।

এছাড়া ‘জাতীয় প্রত্নতাত্ত্বিক অনুসন্ধান ও জরিপ শীর্ষক’ একটি প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশের পুরাকীর্তিসমূহের জাতীয়ভাবে অনুসন্ধান ও জরিপ কার্যক্রমের আওতায় এনে সমন্বিতভাবে যথাযথ ডকুমেন্টেশন, সংরক্ষণ ও প্রকাশনার মাধ্যমে বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে অবিকৃত অবস্থায় তুলে ধরার লক্ষ্যে প্রস্তাব অনুমোদনের কাজ চলমান রয়েছে বলে বৈঠকে জানান হয়।

এ সময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, জাতীয় জাদুঘর, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়