বোয়ালমারীতে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

নড়াইলে ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস পালিত

পরের সংবাদ

প্রভাবশালীর বেড়ায় আবদ্ধ চার পরিবার

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৬, ২০২০ , ৪:০৬ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ১৬, ২০২০ , ৪:০৬ অপরাহ্ণ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার মালিপাড়া গ্রামে লালন মণ্ডল নামে এক প্রভাবশালী ব্যক্তি নিজের বাড়ির সামনে তারকাটার বেড়া দিয়ে এলাকার চার পরিবারকে আবদ্ধ করে রেখেছেন। এই বেড়ার মাধ্যমে তাদের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছেন। গত সাত দিনেও রাস্তাটি উন্মুক্ত করার ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি স্থানীয় প্রশাসন। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী লোকজন।

জানা যায়, দৌলতপুর উপজেলার খলিসাকুণ্ডি ইউনিয়নের মালিপাড়া গ্রামের চারটি পরিবারের লোকজনের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি গত এক সপ্তাহ আগে তারকাটার বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেন এলাকার প্রভাবশালী লালন মণ্ডল। তিনি নিজের ইচ্ছা খুশি মতো রাস্তা বন্ধ করার এ ঘটনায় চলাচলের জন্য চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবারগুলোর লোকজন।

লালন মণ্ডল ওই গ্রামের প্রভাব প্রতিপত্তির মালিক হওয়ায় ভুক্তভোগী লোকজন রাস্তা বন্ধের প্রতিবাদ করেও কোনো লাভ হয়নি। অন্যদিকে এ ব্যাপারে অবগত হয়েও এখন পর্যন্ত রাস্তাটি তারকাটার বেড়ামুক্ত করে মানুষজনের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করতে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি উপজেলা প্রশাসন।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, নিজের জায়গা অন্য কাউকে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন লালন মণ্ডল। এরপর তিনি সেখানে এই কাটাতারের বেড়া দিয়ে মানুষের চলাচলের রাস্তা আটকে দিয়েছেন। প্রভাবশালী লালন মণ্ডল মালিপাড়া গ্রামের তাহের মণ্ডলের ছেলে। তারা পিতাপুত্র মিলে রাস্তায় বেরিকেড দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন বলে ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন।

ভুক্তভোগী জিয়াউর রহমান জানান, লালন মণ্ডলের বাবা তাহের মণ্ডল প্রায় ২৭ বছর আগে তাদের বিচ্ছিন্ন প্রায় ওই গ্রামে জমি কিনে বসবাসের জন্য বলেন। তবে বের হওয়ার রাস্তা না থাকায় তারা প্রথমে যেতে রাজি হন়নি। সে সময় তাহের মণ্ডল তাদের চলাচলের জন্য রাস্তা দেয়ার আশ্বাস দিয়ে সেখানে নিয়ে যান। কিন্তু হঠাৎ করেই সপ্তাহখানিক আগে তার ছেলে (লালন মণ্ডল) রাস্তাটিতে তারকাটার বেড়া দিয়ে দেন।

ওই প্রভাবশালীর দেয়া তারকাটার বেড়ায় এখন আবদ্ধ হয়ে রয়েছেন সেখানকার এই প্রতিবেশী চার পরিবার। এ ঘটনার পর থেকে চলাচলের রাস্তা না পেয়ে ভুক্তভোগী পরিবারগুলোকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বিকল্প পথ হিসেবে বাগানের ভেতর দিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছেন পরিবারগুলোর সদস্যরা। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু সমাধানের দাবি জানিয়েও কোনো ফল পাননি ভুক্তভোগীরা।

নিজের খেয়াল খুশি মতো রাস্তা বন্ধ করে মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টির ঘটনায় অভিযুক্ত লালন মণ্ডলের বক্তব্য নেয়ার জন্য তার সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আক্তার সাংবাদিকদের বলেন, সরেজমিনে পরিদর্শন করে রাস্তার বিষয়টি সুরাহা করে দেয়া হবে। তবে সময় স্বল্পতার কারণে এই মুহূর্তে সেখানে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। আগামী দুয়েকদিনের মধ্যে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ হবে।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়