সারারাত যুদ্ধের পর শত্রু মুক্ত হয় তাহিরপুর

আগের সংবাদ

লন্ডনের রাস্তায় হঠাৎ গুলি

পরের সংবাদ

ক্ষমা চেয়েও পার পাননি মুশফিক

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৫, ২০২০ , ৫:৩৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ১৫, ২০২০ , ৫:৪৩ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের প্রথম এলিমিনেটরে বরিশালের বিপক্ষে খেলায় সতীর্থ নাসুম আহমেদকে মারতে উদ্যত হন টাইগার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এ নিয়ে মঙ্গলবার ফেসবুকে এক পোস্টের মাধ্যমে ক্ষমাও চান উইকেটরক্ষক এ ব্যাটসম্যান। ক্ষমা চেয়েও পার পাননি তিনি। শৃঙ্খলা ভঙ্গের শাস্তিসরূপ জরিমানার পাশাপাশি তার নামের সঙ্গে এক ডিমেরিট পয়েন্টও যোগ হয়েছে।

ঘটনা ঘটেছিল ফরচুন বরিশালের ইনিংসের ১৭তম ওভারে। সেই ওভারের শেষ বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ভাসিয়ে দেন বরিশালের ব্যাটসম্যান আফিফ হোসেন ধ্রুব, কিন্তু ধরা পড়েন উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিমের হাতে। ওই ক্যাচটি ধরতে এগিয়ে যান নাসুম আহমেদও। তার সঙ্গে মুশফিকুর রহিমের অল্প ধাক্কাও লাগে। মুহূর্ত চিন্তা না করেই মুশফিক নাসুমের দিকে তেড়ে যান। যদিও শেষ পর্যন্ত নিজেকে নিয়ন্ত্রণে নিতে সক্ষম হন তিনি। সে সময় ম্যাচ জিততে ১৯ বলে ৪৫ রান প্রয়োজন ফরচুন বরিশালের। বোলার শফিকুল ইসলামের সেই ওভারের আগের পাঁচ বলে ১০ রান উঠেছিল।

এর আগে ইনিংসের ১৩তম ওভারে এমন আরেকটি ঘটনা ঘটে। বল করছিলেন নাসুম। আফিফ হোসেন মিড অনে বল ঠেলে দেন। তখন দুজনই ফিল্ডিং করতে চলে গিয়েছিলেন সেখানে। নাসুম স্ট্যাম্প ছেড়ে বল ধরতে চলে যান অন্যদিকে। ঠিক সেসময় স্ট্রাইক প্রান্তটি অরক্ষিত হয়ে পড়ে। বল নেওয়ার পর মুশফিক রেগে গিয়ে নাসুমকে বল ছুড়ে মারতে দেখা যায়। এমন আচরণের জন্য বিসিবি কোড অব কন্ডাক্টের লেভেল ১ ভাঙায় ম্যাচ ফি’র ২৫ শতাংশ কাটা যাচ্ছে বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়কের। শৃঙ্খলা ভঙ্গের শাস্তিস্বরূপ একটি ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়েছে মুশফিকের নামের পাশে। বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়ক আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো কিছু না শুনিয়ে এই শাস্তি মেনে নিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার এক ফেসবুক পোস্টে ক্ষমা চেয়ে মুশফিক বলেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে সবার আগে আমি ম্যাচ চলাকালীন ঘটে যাওয়া ঘটনাটি সম্পর্কে আমার সমস্ত ভক্ত এবং দর্শকদের কাছে ক্ষমা চাইতে চাই। আমি ইতিমধ্যে আমার সহকর্মী, সতীর্থ নাসুমের কাছে খেলার পরে ক্ষমা চেয়েছি। দ্বিতীয়ত, আমি সর্বশক্তিমান আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করি। আমি সর্বদা মনে রাখি যে, আমি একজন সর্বোপরি মানুষ এবং আমি যে অঙ্গভঙ্গি দেখিয়েছি, তা মোটেই গ্রহণযোগ্য ছিল না। ইনশাআল্লাহ, আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যে, ভবিষ্যতে মাঠে বা মাঠের বাইরে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না, জাজাকআল্লাহ খায়ের।’
মুশফিকুর রহিমের পর এটি নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন নাসুম আহমেদও। তার ভাষ্য মতে, এটি মাঠের বিষয় বলে মাঠেই এর পরিসমাপ্তি। তা ছাড়া মুশফিক তাকে অনেক বিষয় শেখায় বলে উল্লেখ করেন নাসুম।

এ সম্পর্কে নাসুম বলেন, ‘ওনার সঙ্গে আমার অফ দ্য ফিল্ডের বন্ধনটা অনেক ভালো। এমনকি এই টুর্নামেন্টে উনি আমাকে ব্যক্তিগতভাবেও প্রচুর সময় দিয়েছেন, কীভাবে আরও ভালো করা যায়, দুর্বল দিকগুলা কীভাবে দ্রুত কাটিয়ে উঠা যায়।’ তিনি আরো যোগ করেন, ‘দয়া করে আমাদের এই ইস্যু নিয়ে তেমন কিছু লিখবেন না। বুধবার আমাদের গুরুত্বপূর্ণ খেলা আছে। সবাই দোয়া করবেন জাজাকাল্লাহু খাইরান।’

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়