পরিষদের নামে ফেসবুকে মিথ্যাচার করা হচ্ছে

আগের সংবাদ

রাজাকারদের ঘাঁটিতে বিজয় নিশান উড়িয়েছিল মুক্তিসেনারা

পরের সংবাদ

নিক্সন চৌধুরী কাণ্ড: চরভদ্রাসনের উপজেলা নির্বাচন বাতিল

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৬, ২০২০ , ১০:৪৪ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০২০ , ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

এমপি নিক্সন চৌধুরীর কারণে আলোচিত ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচন বাতিল করা হয়েছে। গত ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ওই নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করে রোববার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ফরিদপুর জেলা চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের শূণ্য পদে ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত করার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিট গঠন করা হয়। কমিটি তদন্ত শেষে নির্বাচন কমিশনারের কাছে প্রতিবেদন পেশ করে। তদন্ত প্রতিবেদনে নির্বাচন পরিচালনায় অনিয়মের বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় নির্বাচন কমিশন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা ২০১৩ এর বিধি ৮৮ অনুসারে বাতিল করা হয়েছে।

গত ১০ অক্টোবর এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ ওঠে। ভোটের আগের দিন রাতে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্সে ভরে রাখার অভিযোগে ১৫ নম্বর চরভদ্রাসন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের নির্বাচন শুরুতেই স্থগিত করা হয়। ওই কেন্দ্রে মোট ভোটার ছিলেন দুই হাজার পাঁচ শ জন।

নির্বাচনের দিনে একটি কেন্দ্রে জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টার ঘটনায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর এক সমর্থককে নির্বাহী হাকিম আটক করার প্রতিবাদ জানিয়ে ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মুজিবর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন চরভদ্রাসনের ইউএনও জেসমিন সুলতানাকে ফোন করে প্রকাশ অযোগ্য ভাষায় গালাগালি করেন।

নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর রাত ৮টার দিকে চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে সমবেত জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য দিতে গিয়ে সাংসদ আচরণবিধি ভঙ্গ করে ওই নির্বাচনে ১২ নির্বাহী হাকিমকে নিয়োগ দেওয়ার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে জেলা প্রশাসককে ‘রাজাকার’ আখ্যায়িত করে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন।

ঘোষিত ফলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কাওসার হোসেনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৬ হাজার ৫২৮ ভোট পেয়েছিলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান কে এম ওবায়দুল বারী পেয়েছিলেন ৫ হাজার ৩৪৬ ভোট।

নির্বাচনে অনিয়ম ও সাংসদের আচরণ সারাদেশে আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মুজিবুর রহমান নিক্সনের বিরুদ্ধে তিন দফা আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে গত ১৫ অক্টোবর চরভদ্রাসন থানায় মামলা করেছেন নির্বাচন কমিশন।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়