শান্তি চুক্তির ২৩তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ

আগের সংবাদ

শচিনকে টপকে গেলেন কোহলি

পরের সংবাদ

জয়ের মুখ দেখল ঢাকা

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২, ২০২০ , ৮:৫৬ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২০ , ৮:৫৬ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের মুখ দেখল মুশফিকুর রহিমের বেক্সিমকো ঢাকা। টুর্নামেন্টের নবম ম্যাচে আজ তামিম ইকবালের ফরচুন বরিশালকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে মুশফিকের দল। ফরচুন বরিশালকে নির্ধারিত ২০ ওভারে রবিউল ইসলামের বোলিং তোপে মাত্র ১০৮ রান করতে দিয়ে ৭ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ঢাকা। ৪ উইকেট নিয়েছেন রবিউল। দলের জয়ে ব্যাট হাতে অবদান রেখেছেন মুশফিকুর রহিম। তিনি খেলেছেন দলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ রানের ইনিংস। ৩০ বলে ৪৪ করেছেন ইয়াসির আলি।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নামে তামিম ইকবালের বরিশাল। যথারীতি সাইফ হাসানকে নিয়ে ইনিংস ওপেন করতে নামেন ফরচুন দলপতি। রবিউল ইসলামের বোলিং তোপে তারা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০৮ রান করে। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয় করেছেন সর্বোচ্চ ৩৩ রান। তামিম ইকবালের ব্যাট থেকে এসেছে ৩১ রান। এই ৩১ রান করেই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্য সবার আগে ৬ হাজারি ক্লাবে প্রবেশ করলেন তিনি। বাকিদের মধ্যে মেহেদি হাসান ১২ রান করেছেন। আর কেউই দশের ঘর পেরোতে পারেননি। সাইফ ৯, তাসকিন আহমেদ ৬, ইরফান শুক্কুর ও তানভির ৩ করে রান করেছেন। পারভেজ হোসেন ইমন ও আফিফ হোসেন আউট হয়েছেন শূন্য রানে। ঢাকার হয়ে ৪ উইকেট নিয়ে বরিশালকে অল্পের মধ্য বেঁধে ফেলতে অবদান রেখেছেন রবিউল। দুটি উইকেট নিয়েছেন শফিকুল ইসলাম। ১টি করে উইকেট পান নাঈম হাসান ও রুবেল হোসেন।

জবাবে ঢাকার ইনিংস ওপেন করতে নামেন নাঈম শেখ ও রবিউল ইসলাম। রবিউল ২ রানে আউট হলে খেলতে নামেন দলপতি মুশফিকুর রহিম। এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত জয়শূন্য থাকা ঢাকাও চেয়েছিল মুশফিকের পানে। শেষ পর্যন্ত এই ব্যাটসম্যান অপরাজিত থেকেই দলকে জয় উপহার দেন। দলীয় ২৩ রানে রান আউটের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরেন নাঈম। পরে খেলতে আসেন তানজিদ হোসেন। তানজিদ ২০ বলে ২২ রান করে মেহেদি হাসানের বলে আইবিডবিøউ হয়ে ফিরে যান। এরপর ইয়াসির আলির সঙ্গে জুটি বেঁধে দলকে জয়ের মুখ দেখান মুশফিক। ইয়াসির ৩০ বলে করেছেন ৪৪ রান। তার ইনিংসে ৩টি ৪ ও ২টি ছয়ের মার ছিল। মুশফিক ৩৪ বলে করেছেন ২৩ রান।

এ জয়ের ফলে বরিশালের সমান ২ পয়েন্ট হলো ঢাকার। দুদলই ৪ ম্যাচের মধ্য ১টি করে ম্যাচে জয় পেয়েছে। বরিশাল নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ৫ উইকেটে জিতেছিল মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর বিপক্ষে। আর ২ ম্যাচে জেমকন খুলনা ও গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে হেরেছে দলটি। বেক্সিমকো ঢাকা আগের ৩ ম্যাচে হেরেছিল মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী, জেমকন খুলনা ও গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে। পয়েন্ট টেবিলে এখনো তলানিতেই রয়েছে মুশফিকুর রহিমের দল। নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় তামিম ইকবালের ফরচুন বরিশাল আছে বেক্সিমকো ঢাকার ঠিক উপরে। দুদলেরই আর চারটি করে ম্যাচ বাকি আছে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়