আফগানিস্তানে আত্মঘাতী গাড়িবোমা হামলা, নিহত ৩০

আগের সংবাদ

কোহলিদের হারিয়ে সিরিজ জিতল অস্ট্রেলিয়া

পরের সংবাদ

সড়কে নৈরাজ্য বন্ধে

নবীগঞ্জে প্রশাসনের কাছে সব বাস হস্তান্তর করলো মালিকরা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২০ , ৬:২৬ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০২০ , ৬:২৬ অপরাহ্ণ

হবিগঞ্জ জেলার সড়ক ও মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ না হওয়ায় নবীগঞ্জ উপজলার সকল বাস উপজলা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করে দেয়া হয়েছে। রোববার (২৯ নভেম্বর) সকাল ১১টা হবিগঞ্জ শহরের বাসগুলো জেলা প্রশাসক ও উপজেলার বাসগুলো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জানা যায়, হবিগঞ্জ জেলার সড়ক ও মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবিতে গত ১৭ নভেম্বর হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন মোটর মালিক গ্রুপ, জেলা বাস, মিনিবাস কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের নেতারা। সংবাদ সম্মেলনে তারা জানান, ২৮ নভেম্বরের মধ্যে সড়ক মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সাসহ সকল অবৈধ পরিবহণ বন্ধ করা না হলে প্রশাসনের কাছে জেলার সকল বাস হস্তান্তর করে দেয়া হবে।

সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ি গত ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলে জানান জেলা মটরমালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শুভ্র শঙ্ক রায়।তিনি বলেন, ‘হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কে অবৈধ গণপরিবহণ চলাচল করছে। হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে মহাসড়কে সিএনজিচালিত অটোরিকশাও চলছে। এসব গাড়ি বন্ধের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আমরা দাবি জানিয়ে আসছি। দাবি আদায়ে বিভিন্ন সময় বাস চলাচল বন্ধ করে কর্মবিরতিও পালন করেছি। প্রশাসনের লোকজন অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেও কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

উপজেলার সমনে সকল বাস রাখা হয়।ছবি: প্রতিনিধি

তিনি আরও বলেন, ‘গত ১৪ অক্টোবর আমরা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছি। এরপরও কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় ২০ অক্টোবর বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়। তখন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার আমাদের আশ্বস্ত করেন ১ নভেম্বর থেকে অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু হবে। কিন্তু এতকিছুর পরও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে আমাদেরকে এ সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।শুভ্র শঙ্ক রায় দাবি করেন, এসব অবৈধ যানবাহনের কারণে দিনের পর দিন মোটা অংকের লোকসান গুণতে হচ্ছে বৈধ পরিবহনগুলোকে। অনেক পরিবহন মালিক দেউলিয়া হওয়ার পথে।এদিকে, বাস চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে হবিগঞ্জের যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিপর্যয় নেমে আসবে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

তারা বলছে, হবিগঞ্জের যোগাযোগ ব্যবস্থায় বাস একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। এই পরিবহনটির মাধ্যমে জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করেন। কিন্তু এটি বন্ধ হয়ে গেলে চরম ভোগান্ত সৃষ্টি হবে সারা জেলায়। পাশাপাশি অন্যন্য অবৈধ পরিবহণগুলো আরও বেপরোয়া হয়ে উঠবে। দূর্ঘটনা বৃদ্ধির পাশাপাশি সড়কে নৈরাজ্য রাড়বে চরম পর্যায়ে।এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন জানান,জেলার নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়