আলফাডাঙ্গায় মাটি ও বালু ব্যবসায়ীকে প্রায় দেড় লাখ জরিমানা

আগের সংবাদ

নিজস্ব জনবলে শ্রীকাইল গ্যাসকূপ উন্নয়ন করল বাপেক্স

পরের সংবাদ

জুয়েলকে পোড়াতে ‘কাঠ-তেল আনেন’ ফরিদুল

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২০ , ৭:৪১ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০২০ , ৭:৪১ অপরাহ্ণ

লালমনিরহাটের বুড়িমারীতে গুজব ছড়িয়ে শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে ফেলার মামলায় আরও এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) বলছে, শনিবার সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার মো. ফরিদুল ইসলাম (৩৭) গত ২৯ অক্টোবর শহীদুন্নবী জুয়েলকে পুড়িয়ে মারতে কাঠ, পাটখড়ি ও কেরোসিন তেল এনে আগুন ধরিয়ে দেয়ার কাজে জড়িত ছিলেন।

এ জন্য ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে রোববার দুপুর তাকে তিন দিন হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞসাবাদের আবেদন জানানো হয় লালমনিরহাটের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আমলি আদালত-৩ এ। শুনানি শেষে বিচারক বেগম ফেরদৌসী বেগম তিন দিনেরই রিমান্ডে দেন।

গত ২৯ অক্টোবর বিকেলে পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তর্কাতর্কির পর ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে পিটিয়ে হত্যা করা হয় ৫০ বছর বয়সী শহীদুন্নবী জুয়েলকে। পরে তার দেহ পেট্রল ঢেলে জ্বালিয়ে দেয়া হয়। ঘটনার সময় শহীদুন্নবী জুয়েলের সঙ্গী ৫১ বছর বয়সী সুলতান জোবায়ের আব্বাসও আহত হন। একপর্যায়ে পুলিশ তাকে হেফাজতে নেয়।

রোববার (২৯ নভেম্বর) আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন লালমনিরহাট ডিবির পরিদর্শক মাহমুদুন্নবী। তিনি বলেন, ফরিদুল ইসলাম সেদিন শহীদুন্নবী জুয়েলকে পুড়িয়ে মারার জন্য কাঠ, পাটখড়ি ও কেরোসিন তেল এনে আগুন ধরিয়ে দেয়ার কাজে সরাসরি সম্পৃক্ত। তাই ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের জন্য তাকে তিন দিনের রিমান্ড নেয়া হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় বুড়িমারীর উফারমারা নাটারপাড়া থেকে ফরিদুলকে গ্রেপ্তার করে ডিবি। তাকে নিয়ে আলোচিত ঘটনায় করা তিন মামলায় ৪০ আসামিকে গ্রেফতার করেছে লালমনিরহাট ডিবি ও পাটগ্রাম থানা পুলিশ। তাদের মধ্যে ফরিদুলসহ ১৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়