কারাগার থেকে বেরিয়ে নিজেকে নির্দোষ দাবি চেয়ারম্যানের

আগের সংবাদ

ফিলিপস ঝড়ে লণ্ডভণ্ড উইন্ডিজ

পরের সংবাদ

গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা, সৎ ছেলেকে খুঁজছে পুলিশ

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২০ , ৯:৫৩ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০২০ , ৯:৫৩ অপরাহ্ণ

রাজধানীর কাফরুল থানাধীন বাইশটেক ইমাম নগর এলাকা থেকে সীমা আক্তার (৩৩) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, প্রাথমিকভাবে তারা ধারণা করছেন, ওই নারীকে হত্যার পর লাশ পোড়ানো হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকেই আগের ঘরের ছেলে ও পূত্রবধুকে খুঁজে পায়নি পুলিশ। রবিবার (২৯ নভেম্বর) কাফরুল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিমুজ্জামান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

পুলিশের এ কর্মকর্তা ভোরের কাগজকে বলেন, রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। পরে সেখানে খাটের ওপর মরদেহ পড়া অবস্থায় পান। সেখানে দেখা যায়, লাশকে পোড়ানোর চেষ্টা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নিহত সীমা আক্তার এর আগে বিয়ে হয়েছিল। পরে পারিবারিকভাবে তিনি শাহজাহান শিকদারকে বিয়ে করেন। আগের ঘরে তার সন্তান থাকলেও দ্বিতীয় ঘরে কোন সন্তান ছিল না। ইমাম নগরের ওই বাসায় স্বামীর আগের ঘরের ছেলে আশিকুর রহমান নাহিদ ও তার স্ত্রীর সঙ্গে বসবাস করছিলেন তিনি। ব্যবসায়ী স্বামী সকালে কাজে বের হয়ে যান। পরে ফোনে খবর পেয়ে বাসায় এসে এ ঘটনা দেখতে পান। ঘটনার পর থেকেই ছেলে ও তার স্ত্রীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। নিহতের স্বামী ও ভাই মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ঘটনার পরই সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করছে। সুরতহাল শেষে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

লাশটি মর্গে নিয়ে আসা কাফরুল থানার এসআই মাহমুদুল হাসান জানান, মৃতদেহটি বাসার ভিতরে খাটের উপর উপুর হয়ে পড়া ছিল। বিছানার তোষকটিও পোড়া। নারীর মুখসহ শরীরের ডান পাশটি পোড়া। পিঠে একাধিক ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। দাঁত দিয়ে জিহ্বা কামড় দেয়া ছিলো, ধারণা করা হচ্ছে গলায় লুঙি দিয়ে শ্বাসরোধও করা হয়েছিলো তাকে।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, ওই নারীর ঘর থেকে সকালে চিৎকার শোনা যায়। তাই ধারণা করা হচ্ছে, সে সময় তাকে কেউ পেটাচ্ছিলেন। মারের কারণেও এমনটা ঘটতে পারে।

তবে ওসি সেলিমুজ্জামান বলেন, বিষয়টি এখনো তদন্তাধীন। তাই আসলে এখনই কি হয়েছিল বলা সম্ভব হচ্ছে না তদন্ত চলছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ও অন্যান্য তদন্ত শেষে আসলে প্রকৃত ঘটনা কি বলা সম্ভব হবে। এছাড়াও নিহতের স্বামীর আগের ঘরের ছেলেকে পাওয়া গেলেও অনেক কিছুই পরিষ্কার হয়ে আসবে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়