আখাউড়ায় গণমাধ্যম কর্মীদের বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ

আগের সংবাদ

মেয়ে ধর্ষণ মামলায় পিতা-মাতার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

পরের সংবাদ

একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার আলেখ্য গাঁথা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৭, ২০২০ , ৬:০৬ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৭, ২০২০ , ১০:৩২ অপরাহ্ণ

তিনি ছিলেন একজন অভিনেতা, নাট্যজন ব্যক্তিত্ব, কলামিস্ট, দেশীয় বিজ্ঞাপনশিল্পের পুরোধা ব্যক্তিত্ব। টেলিভিশন ও মঞ্চ নাটকে ছিলেন সমান জনপ্রিয়। নাট্যজন, সংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, অভিনেতা, কলামিস্ট এমন সবগুলো অভিধা ও বিশেষণে তাঁকে বিশেষায়িত করা যায়। সংস্কৃতিক অঙ্গন তথা দেশের লাখ-কোটি সাধারণ দর্শক তো বটেই, এমনকি দেশের বোদ্ধা দর্শকের হৃদয় জয় করা এই মানুষটি সবাইকে কাঁদিয়ে শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) চিরবিদায় নিয়েছেন। তিনি আমাদের সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলী যাকের।

আলী যাকের নামটি আমাদের সাংস্কৃতিক অঙ্গণে এমন ভাবে জড়িয়ে আছেন যে, কোনো বিশেষণই তাঁকে ধারণ করার জন্য যথেষ্ট মনে হয় না। সবকিছু চাপিয়ে আজ তাঁর মহাপ্রস্থানকালে যে অবদানটি আমাদের কাছে মহিমান্বিত হয়ে ধরা দিচ্ছে তা হচ্ছে- তিনি ছিলেন ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। যে বিষয়টি তার অভিনেতা ও সংস্কৃতিক অঙ্গণে পদচারণায় অনেকটাই আড়ালে থেকে গেছে। একাত্তরে ৮ নম্বর সেক্টরে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন আলী যাকের। মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের অন্যতম একজন ট্রাস্টি ছিলেন তিনি। আজ তাঁর মহাপ্রস্থান ঘটলেও একাত্তরে বীরত্বের এই অবদান বাঙালি জাতিকে চিরঋণে আবদ্ধ করে রাখবে।

আলী যাকের

স্বাধীনতার পর শুরু হয় তাঁর শিল্প জীবনের আরেক সংগ্রাম। স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে আরণ্যক নাট্যদলে তাঁর শিল্প জীবনে সূচনা হয়। নাট্যকার মুনীর চৌধুরীর কবর নাটক দিয়ে মঞ্চের জীবন শুরু হয় তাঁর। এর পর থিয়েটারকে তিনি জীবনের অংশ করে নিয়েছিলেন।

স্বাধীনতার সময় নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে দেশকে স্বাধীন করতে চেয়েছেন। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসংগ্রামী ছিলেন তিনি। লিখেছেন বই। দৈনিক পত্রিকাতে তার শিল্প ভাবনা ও সমাজ ভাবনা তুলে ধরেছেন অপকটে।

শিল্পকলায় অবদানের জন্য ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশ সরকার তাঁকে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান একুশে পদকে ভূষিত করে। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি পুরস্কার, বঙ্গবন্ধু পুরস্কার, মুনীর চৌধুরী পদক, নরেন বিশ্বাস পদক এবং মেরিল-প্রথম আলো আজীবন সম্মাননা পুরস্কার লাভ করেছেন। মৃত্যুকালে একুশে পদকপ্রাপ্ত এ অভিনেতার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। আজ তাঁর এই মহাপ্রস্থানকালে ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে বলি- জীবন ও কর্মে উজ্জ্বল নক্ষত্র তোমাকে সশ্রদ্ধ সালাম!

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়