অর্থ-সম্পদ না গড়ে দেশে সুবিচার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করুন

আগের সংবাদ

কালীগঞ্জে বাস চাপায় মা-ছেলে নিহত

পরের সংবাদ

শাহজাহানপুরে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৬, ২০২০ , ১:২৬ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৬, ২০২০ , ১:২৬ অপরাহ্ণ

রাজধানীর শাহজাহানপুরে পূর্বশত্রুতার জেরে সুজন হাওলাদার (২২) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। সুজন ওই এলাকাতে একটি ফার্নিচারের দোকানে কাজ করতো। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শাহজাহানপুর রেল কলোনীতে প্রথমে পিটিয়ে আহত করা হয় তাকে।

মৃতদেহের সুতরহাল প্রতিবেদনে পুলিশ উল্লেখ করে, সুজনের পিঠে কয়েক জায়গায় কাটা দাগ, কপালে ও কানের নিচে কাটা দাগ, থুতনিতে ও গলায় নীলাফোলা জখম আছে।

ঢাকা মেডিকেল মর্গে নিহত সুজনের মামাতো ভাই মোঃ কালু মিয়া জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি নারায়নগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলার চৌরাপাড়া। খিলগাঁও তারাবাগ ২নম্বর রোডে পরিবারের সাথে থাকতো সুজন। চার ভাই তিন বোনের মধ্যে সুজন ছিল দ্বিতীয়। শাহজাহানপুর এলাকায় ফার্নিচারের দোকানে কাজ করতো।

শাহজাহানপুর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আবুল আনছার জানান, গতকাল বুধবার সকালে সুজন বাসা থেকে তার বন্ধু মাসুমের সাথে শাহজাহানপুর রেল কলোনীতে যায়। সেখানে পূর্বশত্রুতার জেরে ওই এলাকার এরশাদ ও এরশাদের ভাই হৃদয়, বোন শান্তা, মা রেনু সহ তাদের পরিবারের লোকজন বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে আহত করে সুজনকে। পরে স্বজনরা খবর পেয়ে তাকে আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। তবে তাকে দ্রুত আইসিইউতে নিতে বলেন চিকিৎসকরা। ঢাকা মেডিকেলে আইসিইউ বেড ফাকা না পাওয়ায় বুধবার বিকেলে পান্থপথ একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে এ্যাম্বুলেন্সেই মৃত্যু হয় তার।

সেখান থেকে পরিবারের লোকজন মৃতদেহটি এ্যাম্বুলেন্স করেই সরাসরি শাহজাহানপুর থানায় নিয়ে যায়। এরপর মৃতদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য বুধবার দিবাগত রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায় পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পূর্বশত্রুতার জেরে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তবে কিসের শত্রুতা তা জানার চেষ্টা চলছে। এই ঘটনায় নিহতের পরিবার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। মামলার পরপরই অভিযুক্ত এরশাদের মা ও বোনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরশাদ পলাতক রয়েছে।

স্বজনরা জানায়, সুজন মাঝেমাঝে গাঁজা সেবন করতো। তবে তার সাথে কারো শত্রুতা ছিল কিনা তা জানি না। গতকাল কি নিয়ে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে তাও বলতে পারেনি তারা।

পিআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়